ফরিদপুরে আট বছরের শিশু ধর্ষণ

সোমবার, জুন ২০, ২০২২

ফরিদপুর: ফরিদপুর শহরে আট বছরের শিশুকে ধর্ষণ করে পালিয়েছে ধর্ষক আমিরুল(২৮)। ধর্ষণের শিকার গুরুতর আহত শিশুটিকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। রবিবার (১৯ জুন) বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে ঝিলটুলী পিয়ন কলোনি এলাকায় একটি বাড়ির রান্নাঘরে এ ঘটনা ঘটে।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন ফরিদপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) সুমন রঞ্জন সরকার। পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ওই শিশুটির মা একটি মেসে রান্নাবান্নার কাজ করে। শিশুটির বাবা গত তিনমাস আগে বিদেশে গেছেন। দুপুরে মেয়েটিকে নিয়ে তার মা মেসে রান্নার কাজে যান। এ সময় আমিরুল ইসলাম(২৮) নামের এক যুবক শিশুটিকে ফুসলিয়ে রান্না ঘরের নিয়ে ধর্ষণ করে সটকে পরে।

আমিরুল ঝিলটুলী পিয়ন কলোনী এলাকার বাসিন্দা। সে পেশায় একজন রিক্সা চালক। পরে শিশুটির মা মেয়েটির পা বেয়ে রক্ত দেখার পর জিজ্ঞাসাবাদে ঘটনা বলে শিশুটি।

ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের চিকিৎসক কানিজ ফাতেমা জানান, শিশুটি ওই হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছে। তাকে সর্বোচ্চ চিকিৎসা সেবা প্রদান করা হচ্ছে।

ফরিদপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) সুমন রঞ্জন সরকার আরও বলেন, ‘ধর্ষককে গ্রেফতারের জন্য তার বাড়িসহ বিভিন্ন জায়গায় অভিযান চালানো হয়েছে। এই ঘটনায় পুলিশের দুটি দল কাজ করছে।

বাংলাদেশ লিগ্যাল এইড এন্ড সার্ভিসেস ট্রাস্ট (ব্লাস্ট) ফরিদপুরের সমন্বয়কারী শিপ্রা গোস্বামী বলেন, ‘ধর্ষণের ঘটনায় যে মামলাটি ফরিদপুর কোতয়ালী থানায় দায়ের করা হবে, তার সকল প্রকার আইনি দায়িত্ব নেবে রাষ্ট্র।