পশ্চিম তীরে আবাসন বন্ধে ইসরায়েলের প্রতি ইউরোপের ১৫ রাষ্ট্রের আহ্বান

শনিবার, মে ১৪, ২০২২

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ফিলিস্তিনের পশ্চিম তীর এলাকায় ৪ হাজার আবাসন ইউনিট গঠনের ভয়াবহ পরিকল্পনা হাতে নিয়েছে দখলদার ইসরায়েল। তবে ইসরায়েলকে তাদের এই পরিকল্পনা থেকে সরে আসার আহ্বান জানিয়েছে ইউরোপের ১৫টি দেশ।

সোমবার এ বিষয়ে একটি বিবৃতি দেওয়া হয়েছে ফ্রান্সের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে।

বিবৃতিতে ফ্রান্স ছাড়াও স্বাক্ষরকারী ইউরোপীয় দেশসমূহ হলো জার্মানি, ইতালি, বেলজিয়াম, ডেনমার্ক, ফিনল্যান্ড, গ্রিস, আয়ারল্যান্ড, লুক্সেমবার্গ, মাল্টা, নেদারল্যান্ডস, নরওয়ে, পোল্যান্ড, স্পেন এবং সুইরেডন।

ইউরোপীয় রাস্ট্রগুলোর স্বাক্ষর করা বিবৃতিতে বলা হয়, ‘পশ্চিম তীর এলাকায় যে চার হাজার নতুন আবাসিক ইউনিট গঠনের সিদ্ধান্ত ইসরায়েলের হায়ার প্ল্যানিং কাউন্সিল নিয়েছে, তাতে আমরা গভীরভাবে উদ্বিগ্ন।

দুই দেশের বিদ্যমান সংকট সমাধানে যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপ যে দু’টি আলাদা রাষ্ট্র গঠনের প্রস্তাব (টু-স্টেট সলিউশন) দিয়েছে, নতুন এই প্রকল্প তার সঙ্গে সাংঘর্ষিক।’

‘শুধু তাই নয়, পূর্ব জেরুজালেম ইসরায়েলের বিভিন্ন এলাকা থেকে ফিলিস্তিনিদের জোর করে উচ্ছেদ থেকেই দুই দেশের মধ্যকার সংকটের শুরু। পশ্চিম তীরে আবাসন নির্মানের নতুন এই প্রকল্পের কারণে যদি আরেক দফায় ফিলিস্তিনীদের উচ্ছেদ করা হয়, সেক্ষেত্রে ব্যাপক বিপর্যয় দেখা দেওয়ার সমূহ সম্ভাবনা রয়েছে।’

‘এসব কারণে আমরা ইসরায়েলের সরকারকে পশ্চিম তীরের আবাসন প্রকল্প থেকে সরে আসার আহ্বান জানাচ্ছি।’

চলতি বছরের শুরুর দিকে পশ্চিম তীর এলাকায় ৪ হাজার নতুন আবাসিক ইউনিট তৈরির সিদ্ধান্ত নেয় ইসরায়েলের সরকার, যা প্রতিবেশী ফিলিস্তিন মোটেই ইতিবাচকভাবে নেয়নি। ইসরায়েলের এই সিদ্ধান্তকে সেখানকার সরকারের সম্প্রসারণবাদী নীতির অংশ হিসেবেই বিবেচনা করছেন অধিকাংশ ফিলিস্তিনি।

এ প্রকল্পের প্রতিবাদে নিয়মিত রাজনৈতিক কর্মসূচিসহ গত ফেব্রুয়ারি থেকে ইসরায়েলে চোরাগুপ্তা হামলাও চালাচ্ছে ফিলিস্তিনভিত্তিক বিভিন্ন সশস্ত্র গোষ্ঠী।