ইত্তিহাদ স্টেডিয়ামের সামনে বসল আগুয়েরোর সেই গোলের ভাস্কর্য

শনিবার, মে ১৪, ২০২২

স্পোর্টস ডেস্ক : ঠিক ১০ বছর আগের কথা। আর্জেন্টাইন সুপারস্টার সার্জিও আগুয়েরোর রূপকথার এক গোলে প্রথমবারের মতো প্রিমিয়ার লিগ চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল ম্যানচেস্টার সিটি। ৪৪ বছর পর ইংলিশ লিগের শিরোপা উদযাপনের ১০ বছর পূর্তি হলো এবার।

সেই ঐতিহাসিক ঘটনা এবং ঐতিহাসিক গোলের মুহূর্তটিকে ধারণ করতে অভিনব উদ্যোগ নিয়েছে ম্যানসিটি ক্লাব। তাদের হোম ভেন্যু ইত্তিহাদ স্টেডিয়ামের সামনে বসানো হলো আগুয়েরোর দেওয়া সেই গোলের মুহূর্তটির ভাস্কর্য। সেই ভাস্কর্যটি অবশেষে উন্মোচন করা হলো শুক্রবার।

কুইন্স পার্ক রেঞ্জার্সের বিপক্ষে ওই ম্যাচে জিততেই হবে। হারলেই বিপদ। ম্যাচ যখন ২-২ ব্যবধানে প্রায় শেষ হতে যাচ্ছিল, তখনই ম্যানসিটির ত্রাণকর্তা হিসেবে যেন নিজেকে সামনে নিয়ে আসেন সার্জিও আগুয়েরো। ৯৪তম মিনিটে (৯০+ইনজুরি টাইম ৪ মিনিট) হঠাৎই কিউপিআরের জালে বল জড়িয়ে দেন আগুয়েরো।

সেই এক গোলেই ইতিহাস রচনা হয়ে গেল। গতিপথ বদলে গেল ম্যানসিটির। প্রথমবারের মতো প্রিমিয়ার লিগ এবং ৪৪ বছর পর ইংলিশ লিগ শিরোপা জিতে নেয় ম্যানচেস্টার সিটি।

শুক্রবার ছিল সেই গোলের দশকপূর্তি। আর যার পা থেকে ওই গোলটি এসেছিল, সেই আগুয়েরোকে স্মরণীয় করে রাখল ম্যানসিটি। এদিন তার ভাস্কর্যটি উন্মোচন করা হলো ইত্তিহাদ স্টেডিয়ামের সামনে।

ক্যারিয়ারে ২০১১ সাল থেকে ২০২১ পর্যন্ত ম্যানচেস্টার সিটিতে কাটিয়েছেন আগুয়েরো। রেকর্ড ২৬০টি গোল করে ক্লাবের লিজেন্ড হিসেবে আখ্যায়িত পেয়েছেন এই আর্জেন্টাইন। এ মৌসুমের শুরুতে সিটি থেকে বার্সেলোনায় যোগ দিলেও হার্টের সমস্যার কারণে ফুটবলকে বিদায় জানিয়েছেন ৩৩ বছর বয়সী এ ফুটবলার।

ইত্তিহাদের সামনে নিজের ভাস্কর্য দেখে দারুণ খুশি আগুয়েরো। তিনি বলেন, ‘সত্যি বলতে, জীবনে এটাই আমার জন্য সেরা মুহূর্ত। আমার জন্য বলতে পারি, ওই একটি মুহূর্ত আমার জীবনটাকেই পাল্টে দিয়েছে। ক্লাবের সব কিছুকে পাল্টে দিয়েছে। এই মুহূর্তটা সারাজীবনই আমার হৃদয়ে গাঁথা থাকবে।’

ভাস্কর্যটি নির্মাণ করেছে পুরস্কারপ্রাপ্ত ভাস্কর অ্যান্ডি স্কট। স্টিল গলিয়ে এই ভাস্কর্যটি নির্মাণ করা হয়। শুধু আগুয়েরোই নন, ম্যানসিটর ওই দলের অধিনায়ক ভিনসেন্ট কোম্পানি, অন্যতম মিডফিল্ডার ডেভিড সিলভার ভাস্কর্যও নির্মাণ করা হয়। যে দুটি বসাকো হয়েছে স্টেডিয়ামের পূর্ব পাশে।