তেলের পর এবার অস্থির পেঁয়াজের বাজার

শুক্রবার, মে ১৩, ২০২২

ঢাকা: ভোজ্যতেলের পর এবার পেঁয়াজের বাজারে অস্থিরতা দেখা দিয়েছে। প্রতিকেজি দেশি পেঁয়াজ খুচরা বাজারে বিক্রি হচ্ছে ৪০ থেকে ৪৫ টাকা করে। ভারতীয় পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ৩৫ থেকে ৪০ টাকা করে। যা গত সপ্তাহের থেকে ১০-১৫ টাকা বেশি।

বিক্রেতারা বলছেন, গত কয়েক দিন ধরে ভারত থেকে পেঁয়াজ আমদানি বন্ধ থাকায় বাজারে সরবরাহ কম। ফলে খুচরা বাজারে কেজি প্রতি প্রকার ভেদে ১০ থেকে ১৫ টাকা বেড়েছে। এতে আমাদের কিছু করার নেই।

দাম বৃদ্ধির হাওয়া লেগেছে কাঁচা বাজারেও । এরই মধ্যে চড়া হয়ে উঠেছে সবজির বাজার। তবে কিছুটা স্বস্তি পাওয়া যাবে সবুজ শাকের বাজারে।

শুক্রবার (১৩ মে) সকালে রাজধানীর বেশ কয়েকটি কাঁচাবাজার ঘুরে দেখা যায় মান ও বাজার ভেদে প্রত্যেক সবজির দাম ১০ থেকে ৩০ টাকা পর্যন্ত বেড়েছে।

শুক্রবার (১৩ মে) রাজধানীর মালিবাগ, মুগদা এলাকার কাঁচাবাজার ঘুরে দেখা যায় এখানে গোল বেগুন বিক্রি হচ্ছে প্রতি কেজি ৬০-৭০ টাকায়, যা গত সপ্তাহে ছিল ৪০-৫০ টাকা।

করলা ৫০-৬০ টাকা, মিষ্টি কুমড়া ৩০-৩৫ টাকা (কেজি), টমেটো ৮০-১০০ টাকা, চিচিঙ্গা ৫০-৬০ টাকা, পেপে ৫০-৬০ টাকা, কচুর লতি ৫০-৬০ টাকা, লাউ প্রতি পিস (মাঝারি সাইজ) ৫০-৭০ টাকা, জালি ৪০-৬০ টাকা। অপরিবর্তিত রয়েছে কাঁচা মরিচের দাম। যা বিক্রি হচ্ছে ৮০-১০০ টাকা।

যা গত সপ্তাহের থেকে ১০-৩০ টাকা বেশি দামে বিক্রি হচ্ছে। কিছু সবজির দাম কমেছে যেমন, শাশা বিক্রি হচ্ছে ২০ টাকা, ঢেরস বিক্রি হচ্ছে ৩০-৪০ টাকা, পটল বিক্রি হচ্ছে ৫০-৬০ টাকা, গাজর ৩০-৪০ টাকা। যা গেল সপ্তাহে ১০-২০ টাকা বেশি ছিল।

তবি স্বস্তি পাওয়া যাচ্ছে সবুজ শাকে। বাজারে এখন পাওয়া যাচ্ছে পুই শাক আটি ২০-৩০ টাকা, পাট শাক ১০ টাকা আটি। ৩টা একসাথে কিনলে ২০ টাকা। লাল শাক ১০ টাকা, ডাটা শাক ১০ টাকা। লাউ শাক ৩০ টাকা। দাম কিছুটা কম হওয়ায় ক্রেতাদের ভিড় এসব সবুজ শাকের দোকানগুলোতে।

আবার কিছুটা বেড়েছে আলু ও ডিমের দাম। আলু বিক্রি হচ্ছে ২৫ টাকা কেজি। যা আগে ছিল ২০ টাকা। ডিমের ডজন বিক্রি হচ্ছে ১১০-১২০ টাকা। যা আগে ১০৫-১১০ টাকা ছিল।