কাশ্মীর সম্পর্কে ‘গোপন তথ্য’ ফাঁস করায় শেহলার বিরুদ্ধে মামলা

মঙ্গলবার, আগস্ট ২০, ২০১৯

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : দিল্লির জহরলাল নেহেরু বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন ছাত্রনেতা (ছাত্রী) ও বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র সংসদের ভিপি শেহলা রশিদ জম্মু-কাশ্মীর পরস্থিতি নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে একটি পোস্ট করেছিলেন। তার ওই পোস্ট ভুয়া দাবি করে দেশটির সুপ্রিম কোর্টে আইনজীবী অলোক শ্রীবাস্তব ভুয়া খবর ছড়ানোর অভিযোগ এনে শেহলার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন। তবে শেহলা রশিদ দাবি করেছেন এসব গোপন ও অপ্রকাশিত তথ্য।

শেহলা রশিদের ওই দাবিকে নস্যাৎ করে সমস্ত খবরকে ভুয়া বলে জানিয়ে দেয় ভারতীয় সেনা।

শেহলা রশিদ কাশ্মীরের পরিস্থিতি নিয়ে বিভিন্ন সময় প্রাপ্ত খবর নিয়ে ১০ টি ট্যুইট করেছিলেন। শেহলা রশিদ নিজের ট্যুইটে দাবি করেছিলেন যে, বর্তমানে কাশ্মীরের পরিস্থিতি খুবই খারাপ।

শেহলা রশিদ লিখেছিলেন, জম্মু কাশ্মীরের মানুষ উনাকে বলেছেন যে, কাশ্মীরের সেনা আর পুলিশ রাতে কাশ্মীরিদের বাড়ি ঢুকে বাচ্চাদের বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে যাচ্ছে। এমনকি বাড়ির খাবারও নষ্ট করে দিচ্ছে তারা।

এই সময় কাশ্মীরের দ্বায়িত্ব প্যারামিলিটারি ফোর্সের হাতে আছে। শেহলা রশিদ ট্যুইট করে লেখেন, শুধুমাত্র একজন জওয়ানের নৈতিক কথা বলায় তাকে কাশ্মীর থেকে সরিয়ে দেয়া হয়েছে।

শেহলা রশিদ আরও একটি ট্যুইট করে লেখেন, শোপিয়ানে জিজ্ঞাসাবাদের নামে চারজনকে আর্মি ক্যাম্পে নিয়ে গিয়ে অমানবিক অত্যাচার করা হয়েছে।

এদিকে সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী অলোক শ্রীবাস্তব বলেছেন, শেহলা রশিদ আন্তর্জাতিকভাবে ভারত ও ভারতীয় সেনাবাহিনীর ভাবমূর্তি নষ্ট করার কাজ করছেন। তিনি একটি এজেন্ডার আওতায় ভারতবিরোধী লবির পক্ষে কাজ করছেন। তিনি কেবল জম্মু ও কাশ্মীরের অস্থিতিশীলতা এবং পরিবেশকে নষ্ট করার চেষ্টা করছেন তা নয়, ভারতের ভাবমূর্তি নষ্ট করারও চেষ্টা করছেন। তিনি বিদেশে একটি লবির পক্ষে কাজ করছেন বলেও অভিযোগ আনেন আইনজীবী।