এখনো অটুট তাদের পবিত্র বন্ধন!

রবিবার, মে ৫, ২০১৯

বিনোদন ডেস্ক : ২০১৪ সালে হৃতিক রোশন ও সুজান খানের যখন আইনি বিচ্ছেদ হয়, তখন অনেক ভক্তই মর্মাহত হয়েছিলেন। সোশ্যাল মিডিয়া জুড়ে তার বহু নিদর্শন রয়েছে।

কিন্তু বিবাহবিচ্ছেদের পরও হৃতিক-সুজানের মধ্যে যে সুসম্পর্ক রয়েছে তা বহুবার সামনে এসেছে। কখনো কঙ্গনার প্রসঙ্গে হৃতিকের পাশে দাঁড়িয়েছেন সুজান, আবার কখনো প্রকাশ্যে বা সংবাদমাধ্যমে সুজানের প্রশংসা করেছেন হৃতিক।

সম্প্রতি নেহা ধুপিয়ার একটি চ্যাট শো-তে হৃতিকের সঙ্গে তার সম্পর্কের বিষয়ে কথা বলেছেন সুজান। তিনি বলেন, “হৃতিক আমার সাপোর্ট সিস্টেম। বিয়ে নেই তবু আমরা দু’জন খুব ভালো বন্ধু। আমার জীবনের ওই জায়গাটা খুবই পবিত্র, যা আমাকে কখনোই দুঃখিত করে না। এই ব্যাপারে আমার ছেলেরা খুবই তৎপর। ওরা নিজেরাই অনেক কিছু পরিকল্পনা করে দেয়, ব্যবস্থা করে দেয়।”

ছেলেদের নিয়ে অত্যন্ত উচ্ছ্বসিত সুজান সাক্ষাৎকারে জানান, তার দুই ছেলে হৃদান ও রেহান তার জীবনে ভিটামিনের মতো। তারাই সুজানের কাজের ও বেঁচে থাকার অনুপ্রেরণা।

ওই সাক্ষাৎকারেই সুজান হৃতিকের সঙ্গে তার প্রথম দেখা হওয়ার গল্পটিও বলেছেন। তখনো হৃতিক সুপারস্টার হয়ে ওঠেননি, কিন্তু সুজান জানিয়েছেন যে তখন থেকেই তার চোখে সুপারস্টার ছিলেন হৃতিক। বিদেশে ডিজাইনিং নিয়ে পড়াশোনা শেষ করে মুম্বাইতে এসেই প্রেমে পড়েছিলেন হৃতিকের।

হৃতিক ও সুজানের বিয়ে হয় ২০০০ সালে। ওই বছরে বলিউডে ডেবিউ করেন হৃতিক ‘কাহো না পিয়ার হ্যায়’ ছবি দিয়ে। ছবি মুক্তি পাওয়ার পর পরই বিয়ে হয় এবং স্বাভাবিকভাবেই বহু তরুণীর হৃদয় ভেঙে দেন সদ্য ইন্ডাস্ট্রিতে পা রাখা নায়ক। ওদিকে ফিল্মি পরিবারের মেয়ে হয়েও সুজান কিন্তু কখনোই অভিনয়কে কেরিয়ার হিসেবে বেছে নিতে চাননি। নেহা ধুপিয়ার চ্যাট শো-তে তিনি জানিয়েছেন যে সরাসরি না হলেও ভাগ্য তাকে ঠিক পরোক্ষে বলিউডের সঙ্গে বেঁধে দিয়েছিল।

সুজান ও হৃতিক বলিউডের এমন দুই ব্যক্তিত্ব যারা বিবাহবিচ্ছেদের পরেও কো-পেরেন্টিংকে একটি অন্য মাত্রায় নিয়ে গিয়েছেন। মিলেনিয়াম প্রজন্মকে যদি ধরা যায়, তবে খুব কম সেলিব্রিটি দম্পতিই এইভাবে আলাদা থেকেও সন্তানদের প্রতি মুহূর্তে আগলে রাখতে পেরেছেন। সূত্র: ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস