টাকা বিলি করতে গিয়ে অস্ত্রসহ বিজেপির ৯ নেতা-কর্মী আটক

শনিবার, মে ৪, ২০১৯

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : ভারতের গোঘাটে টাকা বিলি করতে গিয়ে বিজেপির ৯ নেতা-কর্মী পুলিশের হাতে আটক হয়েছে। টাকা বিলির প্রতিবাদ করলে বিজেপির লোকজন তৃণমূল কর্মীদের মারধরের অভিযোগ উঠে।

বৃহস্পতিবার রাতের ওই ঘটনায় পুলিশ আগ্নেয়াস্ত্র সহ নয় বিজেপি নেতা কর্মীকে গ্রেপ্তার করেছে। আটককৃতদের ব্যবহৃত গাড়ি থেকে ৪ লাখ ২১হাজার ৫০০টাকা ও দু’টি গুলি সহ আগ্রেয়াস্ত্র উদ্ধার হয়েছে।

আরামবাগের এসডিপিও কৃশানু রায়ের নেতৃত্বে সেখানে বিশাল পুলিস বাহিনী ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। আটকৃতদের অধিকাংশের বাড়ি আরামবাগ থানা এলাকায়।

বিজেপির আরামবাগ সাংগঠনিক জেলা সভাপতি তথা তেলিগ্রামেরই বাসিন্দা বিমান ঘোষের বিরুদ্ধেও তৃণমূল অভিযোগ করেছে। এসডিপিও বলেন, ঘটনার তদন্ত চলছে।

বিজেপির সভাপতি বিমানবাবু অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, নিরাপত্তার কারণে প্রতিদিন রাতে দলের কর্মীরা আমাকে বাড়িতে পৌঁছতে যান। বৃহস্পতিবার রাতেও গিয়েছিলেন।

আমাকে বাড়ি পৌঁছে দিয়ে ফেরার সময় তৃণমূলের দুষ্কৃতীরা আমাদের দলের কর্মীদের উপর চড়াও হয়। ওরা নিজেরাই ওদের পার্টি অফিস ভেঙে আমাদের নাম মিথ্যা মামলা দিয়েছে। এমনকী, অস্ত্র মামলায় জড়িয়েছে। টাকা উদ্ধারের প্রসঙ্গে বিমানবাবু বলেন, নির্বাচনের কাজে টাকার প্রয়োজন হয়। তাই ওই টাকা গাড়িতে ছিল। তবে ভোটারদের টাকা বিলির অভিযোগ সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন।

পুলিস ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, গত বুধবার রাতে তেলিগ্রামে তৃণমূলের সঙ্গে বিজেপির কর্মীদের গোলমাল বাধে। সেই ঘটনার রেশ ধরেই বৃহস্পতিবার রাতে বিমান ঘোষের নেতৃত্বে বহু বিজেপি কর্মী সমর্থক গাড়ি ও বাইক নিয়ে সেখানে যায়। তারপর সেখানে তৃণমূলের একটি কার্যালয়ে ভাঙচুর চালানো হয়। দু’জন তৃণমূল কর্মীকে মারধর করা হয় বলে অভিযোগ।

তথ্যসূত্র: বর্তমান