খাসোগির শরীর ওভেনে পোড়ানো হয়: আলজাজিরা

মঙ্গলবার, মার্চ ৫, ২০১৯

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : সৌদি সাংবাদিক জামাল খাসোগিকে হত্যার পর তার শরীর টুকরো টুকরো করে বড় আকারের একটি ওভেন বা চুল্লিতে পোড়ানো হয়। ইস্তাম্বুলে সৌদি কনসাল জেনারেলের বাসভবনের এক ওভেনে তার দেহ পোড়ানো হয়।

সৌদি দূতাবাস থেকে ৫০০ মিটার দূরেই রয়েছে কনসাল জেনারেলের বাসভবন।আলজাজিরার এক অনুসন্ধানে বেরিয়ে এসেছে এমন চাঞ্চল্যকর তথ্য।

রোববার রাতে খাশোগি হত্যার বিষয়ে বিস্তারিত তথ্য সংবলিত একটি অনুসন্ধানী তথ্যচিত্র প্রচার করেছে আলজাজিরা আরবি।এতে বলা হয়েছে, সৌদি কনসুলেটের ভেতরে খাসোগিকে হত্যার পর তার মরদেহ টুকরো টুকরো করা হয়।

এরপর কয়েকটি ব্যাগে ভরে কয়েক শ মিটার দূরে অবস্থিত কনসুলেট জেনারেলের বাসভবনে নিয়ে যাওয়া হয়। এরপর ভেতরে তার মরদেহ পোড়ানো হয়। তুর্কি কর্মকর্তাদের তদন্তে পুরো বিষয়টি উঠে এসেছে।

চুল্লি নির্মাণকাজে জড়িত তুরস্কের এক শ্রমিকের সাক্ষাৎকার নিয়েছে আলজাজিরা। তিনি বলেছেন, ‘সৌদি কনসাল থেকে দিকনির্দেশনা পাওয়ার পর এ চুল্লি নির্মাণ করা হয়। তাকে বলা হয়েছিল, এ চুল্লি হবে অনেক গভীর, তাপমাত্রা হবে এক হাজার ডিগ্রি সেলসিয়াসের ওপরে, যাতে যে কোনো ধরনের ধাতব পদার্থও গলে যায়।

এদিকে সৌদি কনসালের দফতরের দেয়ালে খাসোগির রক্তের সন্ধান পেয়েছেন তুর্কি তদন্তকারীরা। শরীরের কোনো অংশ যাতে অবশিষ্ট না থাকে, সেজন্য হত্যাকাণ্ডের পর খাসোগির মরদেহের টুকরো ওভেনে সিদ্ধ করা হয়েছিল।

উল্লেখ্য, গত বছরের ২ অক্টোবর ওয়াশিংটন পোস্টের এই কলামিস্টকে হত্যার পর কনসালের দেয়াল নতুন করে রং করা হয়। তদন্তকারীরা সেই রং ওঠে ফেলার পর দেয়ালে রক্তের আলামত পেয়েছেন।

তথ্যসূত্র: আলজাজিরা