পটুয়াখালীতে গলায় ফাঁস দিয়ে তরুণীর আত্মহত্যা

শনিবার, ফেব্রুয়ারি ২৩, ২০১৯

ঢাকা: পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় অনিকা নামে এক তরুণী গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন। শনিবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে তার নিজ কর্মস্থল পৌরশহরের হাসপাতাল সড়ক সংলগ্ন জননী প্যাথেলোজী ডায়াগনিস্ট সেন্টারে ই.সি.জি রুমের ফ্যানের সাথে গলায় ওড়না প্যাচিয়ে ওই তরুণী আত্মহত্যা করেন।

পুলিশ খবর পেয়ে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করেছে।

ক্লিনিক সূত্র জানায়, কয়েক মাস পূর্বে অনিকা মাঝি পরিচ্ছন্নতা কর্মী হিসাবে জননী প্যাথলজিতে যোগদান করে। শনিবার সকালে নাস্তা খাওয়ার কথা বলে ক্লিনিকের পিছনের একটি রুমে যান। ভিতর থেকে রুম আটকে ফ্যানের সাথে ওড়না জড়িয়ে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেন। অনিকা মাঝি কলাপাড়া পৌর শহরের নাচনাপাড়া এলাকার নির্মল মাঝির মেয়ে বলে জানা গেছে।

মৃত অনিকার খালা শংকরী রানী কর্মকার জানান, তার বোনের মেয়ের বিয়ে কথা চলছিল। প্রেম এবং বিয়ে নিয়ে জটিলতায় অনিকা আত্মহত্যা করতে পারে বলে তিনি জানান।

কলাপাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মনিরুল ইসলাম জানান, এ ঘটনায় একটি ইউডি মামলা করা হয়েছে। কি কারনে এ তরুণী আত্মহত্যা করেছেন তা জানা যায়নি।

তবে মৃতের ব্যবহৃত মোবাইল ফোনটি জব্দ করা হয়েছে।’