জামাতার ছুরিকাঘাতে শ্বশুর নিহত

মঙ্গলবার, জানুয়ারি ২২, ২০১৯

ঢাকা: নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় জামাতার ছুরিকাঘাতে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। নিহত ব্যক্তির নাম ওয়াহাব মিয়া (৫৮)।

সোমবার রাত সাড়ে সাতটায় আলীগঞ্জ মধ্যপাড়ায় এই ঘটনাটি ঘটে। পুলিশ অভিযুক্ত ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করেছে।

ওয়াহাব মিয়া আলীগঞ্জ মধ্যপাড়ার বাসিন্দা। অভিযুক্ত ব্যক্তির নাম আলমগীর হোসেন (৩২)। তিনি নিহতের মেয়ের স্বামী ও স্থানীয় দাপা উকিলবাড়ি মোড় এলাকার বাসিন্দা।

নিহতের স্বজনদের বরাত দিয়ে ফতুল্লা মডেল থানার উপপরিদর্শক (এসআই) ছালেকুজ্জামান জানান, ওয়াহাব মিয়ার মেয়ে শাহনাজ আক্তারের সঙ্গে আলমগীর হোসেনের পারিবারিক ভাবে বিয়ে হয়। কিন্তু বিয়ের পর থেকে তাদের মধ্যে পারিবারিক বিভিন্ন বিষয়ে ঝগড়া-ঝাঁটি হতো। এর জেরে বেশ কয়েক মাস ধরে তারা আলাদা বসবাস করছেন।

তিনি জানান, সোমবার রাত সাড়ে ৭টায় আলমগীর হোসেন তার শ্বশুর বাড়িতে গেলে স্ত্রীর সঙ্গে বাক-বিতণ্ডা হয়। ওই সময় ওয়াহাব মিয়া এগিয়ে আসলে প্রথমে তাঁকে মারধর করেন আলমগীর। একপর্যায়ে তিনি ছুরি দিয়ে ওয়াহাব মিয়াকে আঘাত করেন।

এসআই ছালেকুজ্জামান জানান, স্থানীয়রা ওয়াহাব মিয়াকে শহরের ৩০০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। পরে আলমগীর হোসেনকে স্থানীয়রা আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে।

ফতুল্লা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এসএম মঞ্জুর কাদের বলেন, আলমগীর তার শ্বশুরের বুকের বাম পাশে ছুরিকাঘাত করে। এতেই তার মৃত্যু হয়েছে।

আলমগীরের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে বলে জানান ওসি।