চাদা না পেয়ে পোশাক শ্রমিককে অমানুষিক নির্যাতন

রবিবার, জানুয়ারি ২০, ২০১৯

সাভার: আশুলিয়ায় মাসোহারার টাকা না পেয়ে আরফান (৪৫) নামের এক পোশাক শ্রমিককে রড ও হাতুরি পেটা করে অমানুষিক নির্যাতন করেছে স্থানীয় সন্ত্রাসীরা। পরে তাকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে।

শনিবার আশুলিয়ার জামগড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

জামগড়া এলাকার রুমান ভুইয়ার ডিস ব্যবসার কর্মচারী হিসেবে পরিচিত স্থানীয় সন্ত্রাসী বাবু, তুষার, তুহিন, সাইফুল ও এমরান এ ঘটনা ঘটিয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

আহতের চাচাত ভাই রাজু আহম্মেদ বলেন, পোশাক শ্রমিক আরফান আশুলিয়ার জামগড়া এলাকায় ভাড়া বাড়িতে থেকে স্থানীয় এক্সসিলেন্ট সুয়েটার কারখানার নিটিং সেকশনে কাজ করেন। প্রতিদিনের মতো শনিবার দুপুরের খাবার শেষে নিজ কর্মস্থলের উদ্দেশ্যে রওনা করেন।

পরে জামগড়া এলাকার হিরন গার্মেন্টেসের সামনে স্থানীয় সন্ত্রাসী বাবু, তুষার, তুহিন, সাইফুল ও এমরান তার পথরোধ করে। এ সময় তার কাছে এ মাসের মাসিক মাসোহারা হিসেবে ৫ হাজার টাকা দাবি করে।

এ সময় আরফান টাকা দিতে অপরাগতা প্রকাশ করলেই সন্ত্রাসীরা তার ওপর হামলা চালায়। পরে তাকে পাশের একটি বেকারির ভেতরে নিয়ে গিয়ে লোহার রড ও হাতুরি পেটা করে নির্মম নির্যাতনের পর রাস্তায় ফেলে রাখে।

আশঙ্কাজনক অবস্থায় স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে নারী ও শিশু হাসপাতালে ভর্তি করে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে।

আহতের চাচাত ভাই অভিযোগ করে বলেন, ডিস ব্যবসায়ের আড়ালে তারা এলাকার সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড করে বেড়ায়। জামগড়া এলাকার পোশাক কারখানার শ্রমিকরা বেতন পেলেই ওই সন্ত্রাসীরা শ্রমিকদের কাছ থেকে ভয় দেখিয়ে টাকা হাতিয়ে নেয়। আমার ভাই টাকা না দেওয়ায় তাকে নির্মম নির্যাতন করেছে।

আহত আরফান তার পরিবারের একমাত্র উপার্জনশীল ব্যক্তি। তার আয়ের ওপরেই পরিবারের সকল সদস্যরা নির্ভরশীল। সন্ত্রাসীদের হামলায় ডান পা ভেঙ্গে যাওয়ায় তার পরিবারের সদস্যরা এখন কি করবে এ নিয়ে আক্ষেপ করেন তিনি।

এ বিষয়ে ডিস ব্যবসায়ী রুমান ভুইয়া সাংবাদিকদের বলেন, অভিযুক্তরা সবাই তার অফিসের স্টাফ হিসেবে কাজ করেন। তবে ওই ঘটনার বিষয়ে তিনি কিছুই জানতেন না।

আশুলিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রিজাউল হক দিপু বলেন, এ ঘটনায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের হয়েছে। এছাড়াও খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে পুলিশ।

বিষয়টি খতিয়ে দেখে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলেও তিনি জানান।