সংরক্ষিত আসনে রাজপথে সক্রিয়দের অগ্রাধিকার: কাদের

বুধবার, জানুয়ারি ১৬, ২০১৯

ঢাকা : একাদশ জাতীয় সংসদে সংরক্ষিত নারী আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন দেয়ার ক্ষেত্রে ত্যাগী ও রাজপথে সক্রিয়দের অগ্রাধিকার দেয়া হবে বলে জানিয়েছেন দলটির সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

বুধবার সকালে রাজধানীর ধানমণ্ডি আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার রাজনৈতিক কার্যালয়ে দ্বিতীয় দিনের মতো নারী আসনের জন্য দলীয় মনোনয়ন ফরম বিক্রির ‍কার্যক্রম পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

সেতুমন্ত্রী বলেন, রাজপথের আন্দোলন-সংগ্রামে যারা অগ্রণী ভূমিকা পালন করেছেন, ত্যাগ স্বীকার করেছেন মনোনয়নে, তারা অগ্রাধিকার পাবেন।

‘রাজনৈতিক কর্মীদের-ই বেশি মূল্য দেব। যারা রাজনীতি করেছে, ত্যাগ করেছে, সংগ্রাম-আন্দোলনে ছিল, তাদের প্রাইয়োরিটিটাই এখানে বিশেষভাবে থাকবে’-যোগ করেন কাদের।

নারী আসনে মনোনয়ন পেতে অনেকেই প্রতিযোগিতা করছেন জানিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, আমাদের মোট জনসংখ্যার অর্ধেক নারী। অর্ধেকের বেশি ভোটার নারী। তারা সংসদেও যেতে চায়। এ কারণে সংরক্ষিত নারী আসনে মনোনয়ন পাওয়ার জন্য অনেকেই প্রতিযোগিতা করছেন। আমরা যাচাই-বাছাই শেষে দলীয় মনোনয়ন দেব।

দলীয় মনোনয়নের ক্ষেত্রে কারা এগিয়ে থাকবে এমন প্রশ্নে ওবায়দুল কাদের বলেন, রাজপথে আন্দোলন-সংগ্রাম এবং ত্যাগ তিতিক্ষা ছাড়াও সাংস্কৃতিক অঙ্গনের বিশিষ্ট ব্যক্তিরা নির্বাচনে আওয়ামী লীগের পক্ষে অনেক কাজ করেছেন। সে জন্য তাদেরও মূল্যায়ন করতে হবে।

আওয়ামী লীগ সভাপতি প্রার্থী চূড়ান্ত করবেন জানিয়ে তিনি বলেন, আমাদের সংসদীয় মনোনয়ন বোর্ডের সভায় প্রার্থী চূড়ান্ত হবে। আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার নেতৃত্বে যারা বোর্ডের সদস্য তারা প্রার্থী নির্বাচন করবেন।

প্রসঙ্গত, ৩০ ডিসেম্বর একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন মহাজোট ২৮৮ আসনে নিরঙ্কুশ জয় পায়। আওয়ামী লীগ একাই পেয়েছে ২৫৯ আসন। সংরক্ষিত ৫০ নারী আসনে আনুপাতিক হারে আওয়ামী লীগ ৪৩ আসনে সংরক্ষিত নারী সংসদ সদস্য দিতে পারবে।

সংবিধান অনুযায়ী, জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সরাসরি ভোটে জয়ী দলগুলোর আসন সংখ্যার অনুপাতে সংরক্ষিত নারী আসন বণ্টন করা হয়। আওয়ামী লীগ ছাড়াও বিরোধী দল জাতীয় পার্টি ৪, বিএনপি ১, ওয়ার্কার্স পার্টি ১ ও স্বতন্ত্র প্রার্থীরা জোটভুক্ত হয়ে ১ সংরক্ষিত আসন পেতে পারে।