তৃতীয় শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ!

বুধবার, জানুয়ারি ১৬, ২০১৯

গাজীপুর : গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার স্কুলের তৃতীয় শ্রেণির এক ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। ধর্ষণকারি শহিদ মিয়া (৪২)। সে ময়মনসিংহ জেলার ভালুকা উপজেলার পাড়াগাঁও গ্রামের আব্দুল আলিমের ছেলে।

শহিদ মিয়া বর্তমানে উপজেলার নয়াপাড়া গ্রামের কদম আলীর বাড়িতে ঘর জামাই হিসেবে বসবাস করছেন স্ত্রী সন্তান নিয়ে। কদম আলী শহিদ মিয়ার শশুর।

ধর্ষণের শিকার হওয়া ওই ছাত্রী (৯) বাড়ি শেরপুর জেলার নখলা উপজেলার পাইসকা গ্রামে। বর্তমানে সে পরিবারসহ শ্রীপুর উপজেলার নয়াপাড়া গ্রামে নানা জাবেদ আলী (ওরফে জদু) মিয়া বাড়িতে মা এবং ভাইদের সাথে বসবাস করছে।

ওই ছাত্রীর মা জানান, আমার দুই ছেলে এক মেয়ে, বড় ছেলে ফার্নিচারের দোকানে কাজ করে,ছোট ছেলে একটি হোটেলে কাজ করে, তাদের নিয়ে আমার বাবার বাড়িতে থেকে আমি রাজমিস্ত্রীর কাজ করি। আমার মেয়ে বাড়িতে একা থাকে। এই সুযোগে শহিদ আমার মেয়েকে তার নিজ ঘরে ডেকে নিয়ে ধর্ষণ করে।

ওই ছাত্রী বলেন, বাড়িতে কেউ না থাকায় ভয় দেখিয়ে আমার চাচাত দুলাভাই কয়েক দিন ধরে বিভিন্ন সময়ে ধর্ষণ করে আসছে। এতে আমি প্রায় সময় অসুস্থ্য হয়ে যাই স্কুলে যেতে পারিনা। ঘটনাটি দুই সপ্তাহ পূর্বে ঘটেছে। কিন্তু মেয়েটি ব্যাথা সহ্য করতে না পারায় (১৫ জানুয়ারি) প্রকাশ পায়। পরে মেয়েটির পরিবার বিষয়টি মেয়ের কাছ থেকে বিস্তারিত জানতে পারে।

পরে ওই মেয়েকে নিয়ে তার পরিবার মাওনা আল-হেরা হাসপাতালে নিয়ে গেলে মেডিকেলের এমবিবিএস ডা. মরিয়মের কাছ থেকে ধর্ণনের বিষয়টি নিশ্চিত হতে পারে। ঘটনার পর থেকে ধর্ষক শহিদ মিয়া পলাতক রয়েছে। এখনও পর্যন্ত শ্রীপুর থানায় কোন লিখিত অভিযোগ দেওয়া হয়নি।