দেশ সফরে বিরাট পাশে পাচ্ছেন না স্ত্রী-আনুস্কাকে!

রবিবার, অক্টোবর ১৪, ২০১৮

স্পোর্টস ডেস্ক : বিরাট কোহালি চেয়েছিলেন বিদেশ সফরের পুরো সময়ে স্ত্রী- ও বান্ধবীদের পাশে পাবেন। কিন্তু সে আশা গুড়ে বালি। ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ড বিরাটের এই আবদার মেনে নিচ্ছেন না। প্রাথমিকভাবে, এই ব্যাপারে বিশ্বজু়ড়ে অনুসৃত ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার নীতিই মেনে চলার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

বিদেশ সফরে একটা নির্দিষ্ট সময়ের জন্য স্ত্রী-বান্ধবীদের সঙ্গে থাকার অনুমতি দেয়। একে বলা হয় ফ্যামিলি পিরিয়ড। যার কোন নির্দিষ্ট সময় সীমা নেই। সফরে এর মেয়াদ বাড়ে-কমে। এখন যেমন পাকিস্তানের বিরুদ্ধে সংযুক্ত আরব আমিরশাহিতে দুই টেস্টের সিরিজ খেলছে অস্ট্রেলিয়া। এই সিরিজের পুরোটাই ফ্যামিলি পিরিয়ডের মধ্যে পড়ছে।

বিনোদ রাইয়ের সিওএ আলোচনায় বসেছিল ভারতের টিম ম্যানেজমেন্ট ও নির্বাচকমণ্ডলীর চেয়ারম্যান এমএসকে প্রসাদের সঙ্গে। বৈঠকে বিনোদ রাই ও প্রসাদ ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন, বিরাট কোহলি, রোহিত শর্মা, অজিঙ্ক রাহানে, রাহুল জোহরি ও ডায়না এডুলজি। সেখানেই আলোচনার পর এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

আগামি বছর বিশ্বকাপের আসর বসছে ইংল্যান্ডে। ২০১৫ বিশ্বকাপের নীতিই অনুসৃত হবে বলে বোর্ড-সূত্রে জানা গেছে। অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ডে হওয়া সেই বিশ্বকাপে সেমি ফাইনালের পরই শুধু ক্রিকেটারদের সঙ্গে থাকার অনুমতি দেওয়া হয়েছিল। এবারও তাই হতে যাচ্ছে।

ভারতীয় ক্রিকেট দল এই মুহূর্তে ঘরের মাঠে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে টেস্ট সিরিজ খেলছে। এরপর রয়েছে ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি সিরিজ। তারপর ভারতীয় ক্রিকেট টিম খেলতে যাবে অস্ট্রেলিয়ায়। ২১ নভেম্বর সেখানে শুরু হচ্ছে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ। ১৮ জানুয়ারিতে অস্ট্রেলিয়ায় ভারতের শেষ ম্যাচ।

২৩ জানুয়ারি নেপিয়ারে নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে প্রথম ওয়ানডে খেলা হবে। কিউয়িদের বিরুদ্ধে সিরিজের শেষ ম্যাচ ১০ ফেব্রুয়ারি। অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ডের জোড়া সফরে বিসিসিআই কতদিন ক্রিকেটারদের সঙ্গে স্ত্রী-বান্ধবীদের থাকার অনুমতি দেয়, সেদিকে তাকিয়ে আছে সবাই। তবে বিরাট কোহলি পুরো সফরে স্ত্রী অনুষ্কা শর্মাকে পাশে পাচ্ছেন না, এটা পরিষ্কার। (সূত্রঃ আনন্দ বাজার)