অন্তঃসত্ত্বা নারীকে ধর্ষণচেষ্টা, যুবক গ্রেপ্তার

সোমবার, অক্টোবর ৮, ২০১৮

রাজধানীর মোহাম্মদপুর এলাকায় এক অন্তঃসত্ত্বা নারী যৌন নির্যাতনের শিকার হয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। এই ঘটনায় অভিযুক্ত যুবককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

গতকাল রোববার দুপুর ১টার দিকে এই ঘটনা ঘটে। আজ সোমবার দুপুরে ওই গৃহবধূকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

ভুক্তভোগী গৃহবধূর স্বামী জানান, তিনি একজন নির্মাণ শ্রমিক। ১০ থেকে ১২ দিন আগে তারা গ্রাম থেকে ঢাকায় এসে মেহাম্মদপুরে ভাড়া বাসায় ওঠেন। গতকাল দুপুরে তিনি কাজের জন্য বাসার বাইরে ছিলেন। তার দেড়মাসের অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী বাসায় একা ছিলেন। এসময় পাশের বাসার ভাড়াটিয়া মেহেদী (২২) নামের এক যুবক তাদের ঘরের দরজায় কড়া নাড়েন। পরে তার স্ত্রী দরজা খুলে দিলে মেহেদী ঘরের ভেতর ঢুকে তার স্ত্রীকে ধর্ষণের চেষ্টা চালান। বাধা দিলে ধস্তাধস্তির এক পর্যায়ে মেহেদীর হাঁটুর আঘাত লাগে ওই গৃহবধূর পেটে। এতে তার রক্তক্ষরণ শুরু হয়।

ওই গৃহবধূর স্বামী আরও জানান, গতকাল দুপুরের খাবার খেতে এসে তিনি ঘরে হৈচৈয়ের শব্দ পেয়ে ভেতরে ঢুকে এই দৃশ্য দেখতে পান। পরে মেহেদীকে আটকে রেখে স্ত্রীকে নিয়ে স্থানীয় হাসপাতালে যান। হাসপাতাল থেকে থানায় গিয়ে অভিযোগ করেন তারা। এলাকায় প্রভাব থাকায় পরে ঘর থেকে বের হয়ে মেহেদীও থানায় যান উল্টো অভিযোগ করতে। পরে পুলিশ তাকে আটক করে।

মোহাম্মদপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. জামাল উদ্দিন মীর এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন,‘ভুক্তভোগী গৃহবধূর স্বামী বাদী হয়ে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে একটি মামলা দায়ের করেছে। অভিযুক্ত যুবক মেহেদীকে গ্রেপ্তার করে আজ আদালতে পাঠানো হয়েছে।’