‘বিএনপি-জামায়াত দেশের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করে বিদেশে আশ্রয় নেয়’

শনিবার, আগস্ট ১৩, ২০২২

ঢাকা: বিএনপি-জামায়াত দেশের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করে বিদেশে গিয়ে আশ্রয় নেয় বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কৃষিবিদ আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম।

শনিবার (১৩ আগষ্ট) বাংলাদেশ আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগ আয়োজিত ঐতিহাসিক বঙ্গবন্ধু ভবন প্রাঙ্গণে তিন দিনব্যাপী (১৩-১৫ আগস্ট) ‘ইতিহাস কথা কয়’ শীর্ষক আলোকচিত্র প্রদর্শনীর অনুষ্ঠানের শুরুতে আলোচনা সভায় এসব কথা বলেন তিনি।

নাছিম বলেন, ‘বিএনপি-জামায়াত দেশের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করে দেশের বাইরে গিয়ে আশ্রয় নেয়। বিভিন্ন দূতাবাসে গিয়ে দেশের বিরুদ্ধে নালিশ করে। আমরা নালিশের রাজনীতি করি না, মানুষের অধিকার আদায়ে রাজনীতি করি। গণতান্ত্রিক উন্নত দেশ গড়ার জন্য আমরা সংগ্রাম করি।’

আ ফ ম বাহাউদ্দিন বলেন, ‘আমাদের সংগ্রাম বিএনপি-জামায়াতের সকল ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে। আমরা মানুষকে পুড়িয়ে মারার মতো অপরাজনীতির বিরুদ্ধে সংগ্রাম করি। তাদের যেকোনো ষড়যন্ত্র মোকাবিলায় মাঠে ময়দানে আমরা প্রস্তুত আছি। কোনো তারিখ উল্লেখ করে তাদের বিরুদ্ধে মাঠে নামার প্রয়োজন নেই। আমরা সব সময় মাঠে আছি। আমাদের নেতাকর্মীরা যেখানে অন্যায় দেখবে সেখানেই বলিষ্ঠ কণ্ঠে প্রতিরোধ করবে।’

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বলেন, তারা যদি মনে করে আমরা পালিয়ে যাবো তাহলে ভুল ভাবছে। আমরা জাতির পিতার আদর্শের সৈনিক। মাতৃভূমি রক্ষায় আমরা সব সময় কাজ করবো। যেকোনো অপশক্তি ও ষড়যন্ত্রকারীর বিরুদ্ধে দেশের মানুষের শান্তি ও সম্প্রীতি অক্ষুন্ন রাখতে লড়াই করবো। আমরা পালিয়ে বেড়ানোর জাতি নয়। আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা পালায় না।

আওয়ামী লীগের জায়গা মানুষের হৃদয়ে উল্লেখ করে বাহাউদ্দিন নাছিম বলেন, ‘দেশের কৃষক-শ্রমিকের হৃদয়ে আমাদের জায়গা। আমাদেরকে প্রতিরোধ বা প্রতিহত করা যায় না। আওয়ামী লীগ অপ্রতিরোধ্য। মানুষের যেকোনো অধিকার আদায়ে আমরা পাশে আছি। কোনো অপশক্তি আমাদের দমাতে পারবে না। যেকোনো অপশক্তিকে প্রতিরোধ করতে আমরা প্রস্তুত। জাতির পিতার সোনার বাংলাদেশে কোনো অপশক্তির স্থান নেই।’

নাছিম বলেন, ‘মুক্তিযুদ্ধে যারা আমাদের বিজয় মেনে নিতে পারেনি, যারা পাকিস্তানী শাসকগোষ্ঠীর তল্পিবাহক তারাই ১৫ আগস্ট জাতির পিতার পরিবারের ওপর আঘাত হেনেছিল। বাঙালি জাতির মহান নেতাকে সপরিবারে হত্যা করে ইতিহাসের নিষ্ঠুরতম ঘটনা ঘটিয়েছিল। যা সারা বিশ্বের বিবেককে নাড়া দিয়েছিল, পুরো বিশ্ব স্তম্ভিত হয়েছিল। জাতির পিতার নাম মুছে ফেলার জন্য তারাই ৭ মার্চের ভাষণকে নিষিদ্ধ করেছিল। তারা বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসকে মুছে ফেলার চেষ্টা করেছিল। এদের বিরুদ্ধে সবাইকে সজাগ থাকতে হবে।’

বাংলাদেশ আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি গাজী মেজবাউল হোসেন সাচ্চুর সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক আফজালুর রহমান বাবুর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য অ্যাডভোকেট জাহাঙ্গীর কবির নানক।

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহ-সভাপতি আব্দুল আলিম বেপারি, কাজী শহীদুল্লাহ লিটন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোবাশ্বের চৌধুরী, খায়রুল হাসান জুয়েল, সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল সায়েম, আ ফ ম মাহবুবুল হাসান, দফতর সম্পাদক আজিজুল হক আজিজ, গ্রন্থনা ও প্রকাশনা সম্পাদক মনোয়ারুল ইসলাম বিপুলসহ স্বেচ্ছাসেবক লীগের নেতাকর্মীরা।