আপনার প্রেম কি খাঁটি? বুঝবেন যেভাবে!

সোমবার, আগস্ট ১, ২০২২

লাইফস্টাইল ডেস্ক : প্রেমের সবচেয়ে বড় উদ্দেশ্য সম্ভবত সারা জীবন একসঙ্গে থাকতে চাওয়া। বিয়ের প্রতিশ্রুতি নিয়েই বেশিরভাগ মানুষ প্রেমের সম্পর্কে জড়াতে চায়। বাকি জীবন ঠিকভাবে এগিয়ে নেওয়ার পরিকল্পনা করতে চান দুজনে মিলে। কিন্তু সব সময় নিজের চাওয়ার মতো করে সবকিছু হয় না। আমাদের পরিকল্পনার বাইরেও ঘটতে পারে অনেককিছু। প্রেমের সম্পর্ক খাঁটি কি না তা বোঝা যায় কিছু বিষয়ের মুখোমুখি হলেই।

হয়তো প্রেমের সম্পর্ক ভালোভাবেই শুরু হয়েছিল, এরপর কয়েক মাস এগিয়েছেও ভালোভাবে। পরস্পরের ঘর বাঁধার কথাও হয়েছে। কিন্তু বিয়ের সময় এলে বার বার সেই সিদ্ধান্ত পেছাতে শুরু করে। এমনকী বিয়ে পর্যন্ত আর গড়ায় না সেই সম্পর্ক। ভালোবাসায় জড়ানোর পরে সব ভেঙে নতুন করে বাঁচাটা দুঃসাধ্য হয়ে যায় অনেকের জন্যই। আপনার প্রেম কি আসলেই খাঁটি? নিজেকে এই প্রশ্নগুলো করে দেখুন-

আপনি নিজের মনের কথা বলছেন:

দুজনের মধ্যে বন্ডিং ভালো হলে সম্পর্ক এগিয়ে নেওয়া সহজ হয়। এক্ষেত্রে দুজন দুজনের মনের কথা ভাগাভাগি করে থাকেন। আপনি কি আপনার মনের মানুষের সঙ্গে সব বিষয় শেয়ার করেন? জীবনের গুরুতর পদক্ষেপে প্রিয় মানুষটির বক্তব্য থাকুক তা চান? যদি এমনটা হয় তবে বুঝবেন আপনি তার সঙ্গে সারা জীবন কাটানোর জন্য প্রস্তুত।

আপনি সম্পর্ক নিয়ে ​পরিকল্পনা করছেন:

আপনি কি আপনাদের সম্পর্ক নিয়ে পরিকল্পনা সাজাচ্ছেন? প্রেমের সময়টাতে আপনি তাকে নিয়ে ভাবতে, আপনাদের ভবিষ্যৎ সুন্দর করে সাজাতে চেষ্টা করছেন? বিয়ের পরে কীভাবে জীবন কাটাবেন তার ধারণা তৈরির চেষ্টা করছেন? যদি এভাবেই ভেবে থাকেন তবে আপনার প্রেম মিথ্যা হওয়ার আশঙ্কা নেই।

তাকে বিশ্বাস করছেন:

একে অন্যের বিশ্বাস অর্জন করা সহজ নয়। একে অন্যকে বিশ্বাস করতে পারলে অনেক সমস্যার সমাধান সহজ হয়ে যায়। তাই খেয়াল করে দেখুন আপনি তাকে এবং সে আপনাকে বিশ্বাস করতে পারছে কি না। দুজন দুজনকে বিশ্বাস করছেন তার মানে হলো সম্পর্ক সঠিক পথেই এগোচ্ছে।

​বিয়ের কথা:

বিয়ে নিয়ে দুজনের মনেই অনেক স্বপ্ন থাকতে হবে। যদি আপনি এবং আপনার সঙ্গী বিয়ে নিয়ে নানা পরিকল্পনার কথা বলতে থাকেন তবে সব ঠিক চলছে। আপনি নিশ্চিন্তে থাকতে পারেন। আপনারা ভালোবাসার মানুষ বলেই বিয়ে করে সারা জীবন একসঙ্গে থাকতে চাইছেন। বিয়ের কথা শুনলেই যদি আপনি কোনো কারণ ছাড়াই পেছাতে থাকেন, তবে আপনার প্রেম আরেকটু খাঁটি করার চেষ্টা করতে হবে।

​পরিবারের সঙ্গে পরিচয়:

আপনারা কি সম্পর্ককে নিজেদের মধ্যেই আটকে রেখেছেন নাকি একে অন্যের পরিবারের সঙ্গে কথা বলিয়ে দেওয়ার জন্য উদগ্রীব হয়ে আছেন? যদি শেষেরটা হয় তবে সঠিক পথেই আছেন। যাকে পছন্দ করেন না, তাকে নিশ্চয়ই পরিবারের সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দেবেন না? মনের ভেতর কোনো খচখচানি থাকলে তা দূরে সরান। কারণ পরিবারের অংশ মানুষ কেবল প্রিয় মানুষকেই করে নেয়।