কান টেনে ধরায় ম্যাডামকে উলঙ্গ করে মারধর!

রবিবার, জুলাই ২৪, ২০২২

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : স্কুলের বারান্দায় ঘোরাঘুরি করায় ছাত্রীর কান টেনে ধরেছিলেন শিক্ষিকা। আর তাতেই ভয়াবহ শাস্তির মুখোমুখি হতে হলো তাকে।

স্কুলের স্টাফ রুমে ঢুকে ওই শিক্ষিকাকে প্রায় উলঙ্গ করে মারধরের অভিযোগ উঠল ওই ছাত্রীর অভিভাবকদের বিরুদ্ধে।

ভারতের বাংলা রাজ্য পশ্চিমবঙ্গে ঘটেছে এ ঘটনা। রাজ্যের দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার ত্রিমোহিনী প্রতাপচন্দ্র উচ্চমাধ্যমিক বিদ্যালয়ের এই ঘটনা ব্যাপক সমালোচনার জন্ম দিয়েছে। অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ নেয়ার দাবি করেছে স্কুল কর্তৃপক্ষ।

ভারতীয় গণমাধ্যম এবিপি’র প্রতিবেদন অনুযায়ী, এই ঘটনায় ব্যাপক উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়েছে বিদ্যালয়সহ আশপাশের এলাকায়। অন্যান্য শিক্ষক-শিক্ষিকারাও আতঙ্কে আছেন।

খবরে বলা হয়, গেল বৃহস্পতিবার এ ঘটনা ঘটে। বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির এক ছাত্রী অযথা বিদ্যালয়ের বারান্দায় ঘোরাঘুরি করছিল। তাকে শাস্তি দিতে তার কান টেনে দেন বিদ্যালয়ের শিক্ষিকা চৈতালি চাকী। তারপরেই ঘটে বিপত্তি।

ছাত্রীর কথা শুনে তার পরিবার থেকে লোকজনসহ প্রতিবেশীরাও একসঙ্গে চড়াও হয় বিদ্যালয়ে। স্টাফ রুমে ঢুকে একপ্রকার নগ্ন করে মারধর করা হয় ওই শিক্ষিকাকে। এই ঘটনায় ব্যাপক উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। আতঙ্কিত হয়ে ওঠেন বিদ্যালয়ের অন্যান্য শিক্ষক শিক্ষিকারা।

শুক্রবার এই ঘটনায় বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক কমল কুমার জৈন-এর মধ্যস্থতায় মীমাংসা করতে আসেন ব্লক প্রশাসনের তরফে জয়েন্ট বিডিও এবং জেলা স্কুল পরিদর্শক। পরিস্থিতি সামাল দিতে মোতায়েন করা হয় বিশাল পুলিশ বাহিনী।

শুক্রবার প্রতাপচন্দ্র উচ্চমাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ঘটনায় তীব্র উত্তেজনা তৈরি হয়। ব্লক প্রশাসনের উপস্থিতিতে জেলা স্কুল পরিদর্শক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষককে নিয়ে মধ্যস্থতা করেন।