আওয়ামী লীগ ও শেখ হাসিনা মানুষের ভরসার জায়গা: হানিফ

বৃহস্পতিবার, জুন ২৩, ২০২২

ঢাকা : আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ এমপি বলেছেন, শেখ হাসিনার ভিশনারি নেতৃত্বে বাংলাদেশ চরম দারিদ্র্যের দেশ থেকে উন্নত জাতি হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হওয়ার পথে। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাঙালি জাতি নতুন করে উন্নত জীবনের স্বপ্ন দেখছে। আওয়ামী লীগ এবং শেখ হাসিনা এদেশের মানুষের আস্থা, ভরসার জায়গায় পরিণত হয়েছেন।

বৃহস্পতিবার (২৩ জুন) বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ৭৩তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন। সভায় সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

মাহবুবউল আলম হানিফ বলেন, বঙ্গবন্ধু ছিলেন ভিশনারি লিডার। ১৯৪৭ সালে পূর্ব ও পশ্চিম পাকিস্তান সৃষ্টির পরই তিনি বুঝতে পেরেছিলেন এই রাষ্ট্র বাঙালির জন্য নয়। তখন থেকেই তিনি বাঙালি জাতির জন্য একটি স্বাধীন রাষ্ট্রের স্বপ্ন দেখেছিলেন। সেই স্বপ্ন পূরণে বাঙালি জাতির অধিকার প্রতিষ্ঠার জন্য জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের হাত ধরে আওয়ামী লীগ প্রতিষ্ঠিত হয়েছিলো।

তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু বাঙালি জাতির মুক্তির জন্য আজীবন লড়াই, সংগ্রাম করেছেন। ১৯৭১ সালে বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে আমরা স্বাধীন রাষ্ট্র পেয়েছিলাম। তিনি ক্ষুধা, দারিদ্র্যমুক্ত ও অসাম্প্রদায়িক দেশ গড়ার স্বপ্ন দেখেছিলেন। কিন্তু ১৯৭৫ সালে একাত্তরের পরাজিত শক্তি বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে হত্যার মধ্য দিয়ে সেই স্বপ্নকে হত্যা করেছিলো। পাকিস্তানের দোসররা রাষ্ট্র ক্ষমতা দখল করে আওয়ামী লীগকে খন্ড-বিখন্ড করার ষড়যন্ত্র করেছিলো।

আওয়ামী লীগ যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বলেন, আওয়ামী লীগ যখন দিশেহারা ঠিক সেই সময়ে দেশে ফেরেন বঙ্গবন্ধুকন্যা। ১৯৮১ সালে তিনি দেশে ফিরে আওয়ামী লীগকে সুসংগঠিত করেন। দীর্ঘ আন্দোলন সংগ্রামের মধ্য দিয়ে ১৯৯৬ সালে আওয়ামী লীগকে ক্ষমতায় নিয়ে আসেন। তার নেতৃত্বে আওয়ামী লীগের লাখ লাখ নেতা-কর্মীর পাশাপাশি দেশের মানুষ আবার নতুন করে স্বপ্ন দেখা শুরু করলো। বঙ্গবন্ধু হত্যার বিচার শুরুর মধ্য দিয়ে দেশকে বিচারহীনতার সংস্কৃতি থেকে বের করে নিয়ে আসেন তিনি।

হানিফ বলেন, ২০০১ সালে ষড়যন্ত্রের মাধ্যমে একাত্তরের দোসররা আবারো ক্ষমতায় আসে। ২০০১ থেকে ২০০৬ সাল পর্যন্ত আবার শুরু হয়েছিলো তান্ডব। এরপর আন্দোলন, সংগ্রামের মধ্য দিয়ে ২০০৮ সালের নির্বাচনে বিজয়ের মাধ্যমে আজ আওয়ামী লীগ টানা তৃতীয়বারের মতো ক্ষমতায়। বাংলাদেশ দ্রুত এগিয়ে যাচ্ছে।

বিশ্বের বিভিন্ন দেশের অর্থনীতিবিদরা বলছেন, উন্নয়নের এ ধারা যদি অব্যাহত থাকে, তাহলে ২০৩১ সালের আগে মরা মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত হবো এবং ২০৪১ সালের আগেই উন্নত বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠত হবে এমনটি উল্লেখ করে হানিফ বলেন, বিশ্বের বুকে আজ বাংলাদেশ আত্মমর্যাদাশীল জাতি হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। উন্নয়নশীল রাষ্ট্র হিসেবে স্বীকৃতি লাভ করেছে।

দেশবাসীকে বঙ্গবন্ধেুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়ায় শরিক হওয়ার আহবান জানিয়ে আওয়ামী লীগের এ সিনিয়র নেতা বলেন, আসুন বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশকে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলার দিকে নিয়ে যাই। যে সোনার বাংলা গড়ার জন্য আজীবন লড়াই, সংগ্রাম করে গেছেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। সোনার বাংলা গড়তে গিয়ে তিনি নির্যাতনের শিকার হয়েছেন এমনকি জীবনও উৎসর্গ করেছেন। শেখ হাসিনার নেতৃত্বেই আমরা সকল ধর্ম, বর্ণের ক্ষুধা, দারিদ্রমুক্ত ও অসাম্প্রদায়িক উন্নত আত্মমর্যাদাশীল দেশ গড়বো।