কনস্টেব‌ল হৃদয়ের জন্য জীবন দিলেন নারী পুলিশ রহিমা

বৃহস্পতিবার, জানুয়ারি ১৩, ২০২২

বগুড়া : বগুড়ার শেরপুরে বিষপা‌নে রহিমা খাতুন (২০) নামে পুলিশের এক নারী কনস্টেব‌ল মারা গেছেন। রহিমার বাড়ি জেলার শেরপুর উপজেলার চন্ডিশ্বর গ্রামে। তিনি চট্টগ্রামের কক্সবাজার ৮ম আর্মড ব্যাটালিয়ন পুলিশে কর্মরত ছিলেন।

বুধবার (১২ জানুয়ারি) বেলা সা‌ড়ে ১১টায় ‌তি‌নি বাড়িতেই বিষপা‌নে অসুস্থ হন ব‌লে তার পরিবার জানায়। সন্ধ্যায় বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

ছি‌লিমপুর মে‌ডি‌ক্যাল ফা‌ড়ির উপ পরিদর্শক (এসআই ) শামীম জানান, বিষপা‌নে অসুস্থ অবস্থায় বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মে‌ডি‌ক্যাল ক‌লেজ হাসপাতা‌লে পু‌লিশের ঐ নারী কন‌স্টেবল ভ‌র্তি হ‌য়েছি‌লেন। সন্ধ্যায় চি‌কিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। র‌হিমার চাচা রুবেল মিয়া জানান, ১০ দিনের ছুটি নিয়ে রহিমা গত ৫ জানুয়ারি শেরপুরে গ্রামের বাড়িতে আসেন।

তার সঙ্গে একই ব্যাটালিয়ানে কর্মরত এক পুলিশ কনস্টেবলের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। প্রেমঘটিত বিষয়ে তাদের মধ্যে ম‌নোমালিন্য হওয়ায় বুধবার বেলা সাড়ে ১১ টার দিকে রহিমা খাতুন বাড়িতেই বিষ পান করে অসুস্থ হয়ে পড়েন। পরে তাকে শেরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রহিমা খাতুন মারা যান।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, দু’বছর আগে পুলিশ কনস্টেবল হিসেবে চাকরিতে যোগ দেন রহিমা। তার প্রথম কর্মস্থল ছিল কক্সবাজার ৮ম আমর্ড পুলিশ ব্যাটালিয়ন (এপিবিএন)। সেখানকার সহকর্মী কনস্টেবল হৃদয় হাসানের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে রহিমা খাতুনের। ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বগুড়া ছিলিমপুর মেডিকেল পুলিশ ফাঁড়ির এটিএসআই আশরাফুল জানান, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে প্রেমঘটিত কারণে রহিমা আত্মহননের পথ বেছে নিয়েছেন। তিনি আরও জানান, আপাতত মরদেহ হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে, বৃহস্পতিবার ময়নাতদন্ত শেষে মরদেহ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে।