ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণ করে সবুজ টমেটো

শনিবার, জানুয়ারি ৮, ২০২২

স্বাস্থ্য ডেস্ক : অ্যান্টিঅক্সিডেন্টে ভরপুর টমেটোর আছে নানা গুণ। টমেটো হচ্ছে একমাত্র সবজি, যাতে চার রকমের ক্যারোটিনয়েড বা ভিটামিন ‘এ’ আছে বিপুল পরিমাণে। এই ক্যারোটিনয়েড বা ভিটামিন ‘এ’ ত্বক ও চোখের সুস্থতা এবং দেহের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়। এটিকে ফল হিসেবেও বিবেচনা করা যায়।

বিশ্বজুড়ে টমেটোর নানা রকম ব্যবহার রয়েছে। এটি ত্বকের যত্নেও ব্যবহার হতে দেখা যায়। সূর্যের অতি বেগুনি রশ্মির ক্ষতিকর প্রভাব থেকে এটি মানুষকে রক্ষা করে বলে ধারণা করা হয়। খাবারে স্বাদ আনতেও অনেকে কাঁচা-পাকা টমেটো ব্যবহার করেন। কাঁচা টমেটো খাওয়ার অভ্যাস সচরাচর খুবই কম।

কাঁচা টমেটোর রয়েছে ক্যালসিয়াম এবং ভিটামিন যা আমাদের হাড় মজবুত হয় এবং আমাদের শরীরের গঠন ঠিক রাখতে সাহায্য করে। কাঁচা টমেটো খেলে আমাদের রক্তের শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রণে থাকে যার ফলে আমাদের শরীরে ডায়াবেটিস মাত্রা বাড়তে পারে না।

কাঁচা টমেটোয় থাকা ভিটামিন বি এবং পটাশিয়াম শরীরে কোলেস্টেরলের মাত্রাকে নিয়ন্ত্রণে রাখে। সেই সঙ্গে রক্তচাপকে স্বাভাবিক রাখতেও বিশেষ ভূমিকা পালন করে। ফলে হার্টের ক্ষতি হওয়ার সম্ভাবনা হ্রাস পায়। একাধিক গবেষণায় দেখা গেছে বীজ সমেত কাঁচা টমেটো খেলে কিডনিতে স্টোন হওয়ার আশঙ্কা একেবারে শূন্যে এসে দাঁড়ায়। তবে কাঁচা টমেটো পরিমাণে বেশি খেলে হজমের সমস্যা হতে পারে, কারণ আলফা টমাটিডিন বেশি পরিমাণে পেটে সয় না। তাই কাঁচা টমেটো পরিমিত খাওয়ার অভ্যাস করুন।

সবুজ টমেটোতে রয়েছে লাল টমেটোর থেকেও বেশি পরিমাণ ভিটামিন সি। আর তাই শরীরে ইমিউনিটি পাওয়ার বাড়িয়ে তোলার ক্ষেত্রে এটি খুবই উপকারি। পাশাপাশি হাড়, দাঁত, মাড়ি এবং ত্বকের জন্য বেশ উপকারী এই ভিটামিন সি। ভিটামিন সি শরীরে ইমিউনিটি পাওয়ার বাড়াতে সাহায্য করে ফলে সর্দি-কাশির সঙ্গে লড়ায় করতে পারে সহজেই।

সবুজ টমেটোতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে বিটা ক্যারোটিন। এটি ভিটামিন এ তৈরি করতে সাহায্য করে। যা দৃষ্টি শক্তির জন্য বিশেষ উপযোগী। পাশাপাশি শরীরে শ্বেত রক্ত কনিকা প্রস্তুত করতেও বিশেষ উপযোগী ভিটামিন এ।

সবুজ টমেটোতে থাকে প্রচুর পরিমাণে ফাইবার। হজমের জন্য যেটি বিশেষ ভাবে প্রয়োজনীয়। কোলন ক্যানসারের সমস্যায় যারা ভুগছেন তাদের ক্ষেত্রেও বেশ উপকারি এই সবুজ টমেটো। এছাড়াও হৃদরোগে ঝুঁকি কমায় সবুজ টমেটো।