‘অপু বিশ্বাস সরে যাননি, তাকে বাদ দেয়া হয়েছে’

বুধবার, আগস্ট ১৯, ২০২০

বিনোদন ডেস্ক: চুক্তিবদ্ধ হওয়ার দু’দিন পরেই ‘আশীর্বাদ’ নামে সিনেমা থেকে সরে দাঁড়ালেন ‘ঢালিউড কুইন’ অপু বিশ্বাস। মঙ্গলবার (১৮ আগস্ট) নিজেই গণ্যমাধ্যমকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন এ অভিনেত্রী।

মোস্তাফিজুর রহমান মানিক পরিচালিত ‘আশীর্বাদ’ নামে সিনেমাটি প্রযোজনার পাশাপাশি কাহিনি ও চিত্রনাট্য রচনা করেছেন জেনিফার ফেরদৌস। রোববার ১৬ আগস্ট এই সিনেমায় চুক্তিবদ্ধ হন অপু বিশ্বাস।

অপু বিশ্বাস বলেন, করোনায় এখনো প্রতিদিন প্রাণ হারাচ্ছে মানুষ। মা বিষয়টি নিয়ে চিন্তিত। তাই এই মাসেই সিনেমার কাজ শুরু করতে দিতে চাচ্ছেন না। আমিও একটু ভাবছি, কারণ কাজ করে বাসায় ফিরে সন্তান ও মায়ের সঙ্গে দেখা করতে হবে। এদিকে ‘আশীর্বাদ’ সিনেমার কাজ শুরু হবে এই মাসেই। তাই এই সিনেমার কাজ ছেড়ে দিতে হচ্ছে।

কিন্তু অপু সরে এসেছেন বলে দাবি করলেও প্রযোজক জেনিফার ফেরদৌস এক ভিডিও বার্তায় বললেন, ‘অপু বিশ্বাস সরে যাননি, তাকে বাদ দেয়া হয়েছে’।

চুক্তির একদিন পরেই কেন বাদ দেয়া হলো? জানতে চাইলে এই প্রযোজক জানান, এ বিষয়ে নিজের ফেসবুকে একটি ভিডিও বার্তা দিবেন তিনি।

পরবর্তীতে দেয়া সেই ভিডিওতে অপু বিশ্বাসকে ‘আশীর্বাদ’ থেকে বাদ দেয়ার বিষয়টি তুলে ধরেন জেনিফার। তিনি বলেন, চুক্তির সময় অপু বিশ্বাস নিজস্ব ফটোগ্রাফার নিয়ে এসে স্থিরচিত্র, ভিডিও করেছেন এবং প্রযোজকের অনুমতি ছাড়াই সাইনিংয়ের এসব কিছু তার ইচ্ছে মতো নিজের চ্যানেলে ব্যবহার করেছেন। যা তাকে আগেই নিষেধ করে দিয়েছিলাম, অনুমতি ছাড়া প্রকাশ না করতে। কিন্তু অপু বিশ্বাস এসব নিষেধ না শোনায় গতকাল (সোমবার) রাতেই পরিচালক মোস্তাফিজুর রহমান মানিকের সঙ্গে আলাপ করেই তাকে বাদ দেই।

তিনি বলেন, প্রযোজকের ইউটিউবে এসব আপলোড করিনি, কিন্তু আগেই অপু আপলোড করে দিয়েছে এসব কন্টেন্ট। যখন তাকে নিয়েছিলাম বিশ্বাস ছিল পেশাদারির জায়গা থেকে সে সিনিয়র শিল্পী। সবকিছু বুঝবে। কিন্তু তার কাজে সেসব কিছু দেখিনি।

জেনিফার ফেরদৌস বলেন, আশীর্বাদ ছবিতে কেন্দ্রীয় চরিত্র কোনো নায়ক বা নায়িকা নন। একজন অটিস্টিক শিশু। অপু নিজেকে ছবির কেন্দ্রীয় চরিত্রের নায়িকা বলে ইন্টার্ভিউ দিয়েছে তাতে আমি কিছু মনে করিনি। কিন্তু সে প্রযোজকের অনুমতি বা পরিকল্পনা না মেনে নিজের মত করে ছবি ভিডিও আপলোড দিয়েছে।