২০১৯ সালে দেশে মানবপাচারের ৬২৫ মামলা

বৃহস্পতিবার, জুলাই ৩০, ২০২০

ঢাকা : আজ ৩০ জুলাই। আন্তর্জাতিক মানবপাচারবিরোধী দিবস। বিশ্বজুড়ে মানবপাচারের কঠিন বাস্তবতায় দিবসটি পালিত হচ্ছে। বৈশ্বিক এ দিবসকে কেন্দ্র করে মানবপাচার সংক্রান্ত যুক্তরাষ্ট্রের বার্ষিক প্রতিবেদনে দেশগুলোর র‌্যাংকিংয়ে বাংলাদেশ আগের বছরগুলোর তুলনায় কিছুটা উন্নতি করেছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বাংলাদেশে এ পর্যন্ত ৬ হাজারের মতো মানবপাচারের মামলা হয়েছে। এরমধ্যে নিষ্পত্তি হয়েছে মাত্র ৩০০টি মামলা। ২০১৯ সালে মানবপাচারের মামলা হয়েছে ৬২৫টি। নিষ্পত্তি হয়েছে মাত্র ৩৯টি।

রিপোর্টে গত তিন বছর ধরে দ্বিতীয় স্তরের নজরদারি তালিকায় ছিল বাংলাদেশ। অভ্যন্তরীণ ও বিদেশে বিভিন্ন মানবপাচারের ঘটনার সঙ্গে বাংলাদেশিদের জড়িত থাকা এবং দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা না নেয়াকেই এর কারণ হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে।

প্রতিবেদনটিরতে লিবিয়ায় ৩০ জন বাংলাদেশির মৃত্যুর ঘটনায় বড় ধরনের অভিযানে অন্তত ৫০ জনকে গ্রেফতারের বিষয়টিও উঠে এসেছে। তবে রোহিঙ্গাদের পাচার নিয়ে বিশ্বাসযোগ্য প্রতিবেদন তদন্তের আহ্বান জানায় মার্কিন কর্তৃপক্ষ।

রিপোর্টে বলা হয়, নৌকা বোঝাই করে মালয়েশিয়ায় রোহিঙ্গা পাচার ও মালয়েশিয়ায় পৌঁছানোর চেষ্টা করা অনেক শরণার্থীকে জিম্মি করা হচ্ছে এবং তাদের স্বজনদের মুক্তিপণ দিতে বাধ্য করা হচ্ছে। আগের তুলনায় এবার অবস্থা পাল্টানোয় বাংলাদেশের র‌্যাংকিংয়ের উন্নতি হয়েছে বলেও জানানো হয়।

উন্নত জীবনের আশায় এক দেশ থেকে আরেক দেশে পাড়ি জমানো মানুষের আদিম প্রবৃত্তি। এক্ষেত্রে স্বল্পোন্নত দেশগুলোর মানুষই তুলনামূলক উন্নয়নশীল কিংবা উন্নত দেশগুলোতে পাড়ি জমাতে চায়। অনেকের বৈধ ভিসা থাকলেও একটি বড় অংশের মানুষ জীবনের ঝুঁকি নিয়ে পাচারকারীদের খপ্পরে পড়ে বিদেশ নামক মরীচিকার পেছনে অজানা জীবনের উদ্দেশে ঘর ছাড়ে।

জাতিসংঘের শরণার্থীবিষয়ক সংস্থার (ইউএনএইচসিআর) তথ্য অনুযায়ী, সারা বছর ভূমধ্যসাগর দিয়ে যে পরিমাণ মানুষ অবৈধভাবে ইউরোপে প্রবেশের চেষ্টা করে, সেই তালিকায় শীর্ষ ১০ নম্বরে আছে বাংলাদেশ। অবৈধ পথে এভাবেই বিদেশে পাড়ি জমাতে গিয়ে গত মে মাসেও লিবিয়ায় মানবপাচারকারঅীদের গুলিতে ২৬ বাংলাদেশি প্রাণ হারিয়েছেন। একই মাসে ভূমধ্যসাগর দিয়ে ইউরোপে প্রবেশের সময় নৌকা ডুবে ৩৭ বাংলাদেশির মৃত্যু হয়। এর ঠিক একমাস আগে অর্থাৎ গত এপ্রিলে ভূমধ্যসাগরে ভাসতে থাকা ৬৪ বাংলাদেশি অভিবাসন প্রত্যাশীকে তিউনিসিয়ার উপকূল থেকে উদ্ধার করা হয়।