‘দুর্নীতিবাজ যদি নিজের দলেরও হয় ছাড় নেই’

রবিবার, সেপ্টেম্বর ২৯, ২০১৯

ঢাকা : দুর্নীতিবাজ যদি নিজের দলেরও হয়, তাকেও ছাড় দেয়া হবে না বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেছেন, জঙ্গিবাদের মতো দুর্নীতির বিরুদ্ধেও যুদ্ধ চলবে।

যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের দেয়া সংবর্ধনায় যোগ দিয়ে তিনি এ কথা বলেন।

জাতিসংঘ সাধারণ অধিবেশনের ৭৪তম আসরে যোগদান শেষে দেশে ফিরে যাওয়ার আগে প্রথা অনুযায়ী প্রবাসীদের দেয়া সংবর্ধনায় যোগ দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ভেন্যুতে পৌঁছাতেই প্রধানমন্ত্রীকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানিয়ে শ্লোগান দেন প্রবাসীরা। এ সময় হাত নেড়ে তাদের ভালোবাসার জবাব দেন শেখ হাসিনা।

আয়োজন যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের হলেও কমিটি জটিলতায় সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের মঞ্চে ছিলেন না প্রবাসী নেতাদের কেউই। তাই জাতিসংঘ স্থায়ী মিশনে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূতের সঞ্চালনায় সরাসরি বক্তৃতা মঞ্চে ওঠেন শেখ হাসিনা।

মুক্তিযুদ্ধ পরবর্তী সময়ে দেশ গঠনে বঙ্গবন্ধুর অবদানের কথা স্মরণ করতে গিয়ে তিনি বলেন, একজন মানুষের ত্যাগে যে কোটি মানুষের উপকৃত হতে পারে, তার উদাহরণ বঙ্গবন্ধু।

পদ্মা সেতু নিজস্ব অর্থে করার একটি মাত্র সিদ্ধান্ত আন্তর্জাতিক অঙ্গনে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল করেছে বলে উল্লেখ করেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেন, ‘আমরা খুব সতর্ক আছি যেন ঋণগ্রস্ত না হই। চেষ্টা করছি যতটা সম্ভব নিজের অর্থায়নেই পদ্মা সেতু করতে।’

সমাজের বৈষম্য দূর করতে দুর্নীতির বিরুদ্ধে নিজের কঠোর অবস্থানের কথা বলতে গিয়ে তিনি বলেন, দুর্নীতিবাজদের দৌরাত্ম্য কমাতে চলমান অভিযান অব্যাহত থাকবে।

প্রবাসীদেরও দেশের বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চলে বিনিয়োগের আহ্বান জানানোর পাশাপাশি প্রধানমন্ত্রী বলেন, সামরিক শাসকরা কেবল ক্ষমতায় থাকতে অভ্যস্ত, তারা জনগণের চাহিদা জানে না।

এক্ষেত্রে তিনি বলেন, জনগণ কাকে চায়, সেটাই গণতন্ত্র। আওয়ামী লীগ জনগণের ক্ষমতায় বিশ্বাস করে।