নির্বাচিত হয়ে যা বললেন ছাত্রদলের নতুন সভাপতি ও সম্পাদক

বৃহস্পতিবার, সেপ্টেম্বর ১৯, ২০১৯

ঢাকা: দুই যুগেরও বেশি সময় পর সরাসরি ভোটে নতুন নেতা পেলো বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল। আদালতের নিষেধাজ্ঞার মধ্যেই দলীয় সিদ্ধান্তে বুধবার রাত পৌনে ৯টার দিকে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাসের শাহজাহানপুরের বাসায় এই কাউন্সিলের ভোটগ্রহণ শুরু হয়। শেষ হয় মধ্যরাতে। বৃহস্পতিবার ভোরে ফলাফল ঘোষণা করা হয়।
এতে ছাত্রদলের নতুন সভাপতি নির্বাচিত হন ফজলুর রহমান খোকন ও সাধারণ সম্পাদক পদে জয়লাভ করেন ইকবাল হোসেন শ্যামল।

ফলাফল ঘোষণার পরই বৃহস্পতিবার সকালে গণমাধ্যমের সামনে আসেন ছাত্রদলের নতুন সভাপতি ও সম্পাদক। শুরুতেই তারা জানান, বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি ও মানুষের গণতান্ত্রিক অধিকার ফিরিয়ে দেয়াই হবে নতুন নেতৃত্বের মূল চ্যালেঞ্জ।

সংক্ষিপ্ত প্রতিক্রিয়ায় ছাত্রদলের নতুন সভাপতি ফজলুর রহমান খোকন বলেন, ‘ছাত্রদলের প্রথম চ্যালেঞ্জ হবে দেশনেত্রী খালেদা জিয়াকে কারাগার থেকে মুক্ত করা। আর তাঁর মুক্তির মধ্য দিয়েই আমরা বাংলাদেশে গণতন্ত্র পুনপ্রতিষ্ঠা করবো। গণমানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠা করবো।’

এসময় সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন শ্যামল সাংবাদিকদের বলেন, ‘আপনারা জানেন, ডাকসু নির্বাচনেও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্ররা ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারেনি। আমরা ছাত্রদের অধিকার এবং বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে ক্রিয়াশীল ছাত্রসংগঠনের কার্যাবলি সুনিশ্চিত করার জন্য ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ শুরু করবো।’

বুধবার রাতের ওই কাউন্সিলে সারা দেশে ছাত্রদলের ১১৭টি ইউনিটের ৪৯০ জন কাউন্সিলর ভোট দিয়ে সংগঠনটির নতুন নেতৃত্ব নির্বাচন করেন।

সবশেষ ১৯৯২ সালে সরাসরি ভোটে ছাত্রদলের কাউন্সিল হয়েছিল। সেবার সরাসরি ভোটে রুহুল কবির রিজভী সভাপতি ও এম ইলিয়াস আলী সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছিলেন। এর দীর্ঘ ২৭ বছর পর বুধবার রাতে ভোটের মধ্য দিয়ে ছাত্রদলের নতুন সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পেলো সংগঠনটি।

এবার সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদে মোট ২৮ জন প্রার্থী ছিলেন। এর মধ্যে সভাপতি পদে ৯ জন এবং সাধারণ সম্পাদক পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন ১৯ জন।

গত ১৪ সেপ্টেম্বর কাউন্সিলের দিন চূড়ান্ত থাকলেও এর একদিন আগে ১৩ সেপ্টেম্বর ঢাকার চতুর্থ জজ আদালত ছাত্রদলের সাবেক কমিটির সহ-ধর্মবিষয়ক সম্পাদক আমান উল্লাহর দায়ের করা মামলায় কাউন্সিলের ওপর স্থগিতাদেশ দেন। সেইসঙ্গে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ ১০ জনকে কারণ দশানোর নোটিশ দেন আদালত। এর পরই আবারও ছাত্রদলের কাউন্সিল অনিশ্চয়তার মধ্যে পড়ে।

এর পর হঠাৎ করেই মঙ্গলবার রাতে গুলশানে শীর্ষ নেতাদের রুদ্ধদ্বার বৈঠকে স্কাইপে লন্ডন থেকে যুক্ত হন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারপারসন তারেক রহমান। সেই বৈঠকেই কাউন্সিলের সিদ্ধান্ত হয়।

এর পরদিনই গতকাল বুধবার সারা দেশের কাউন্সিলরদের বিকেল ৪টার মধ্যে ঢাকায় নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে উপস্থিত থাকার জন্য নির্দেশ দেয়া হয়। যথারীতি সারা দেশ থেকে কাউন্সিলররা এসে হাজির হন। এরইমধ্যে বিকেলে সাবেক ছাত্রদল নেতাদের সঙ্গে আবারও স্কাইপে রুদ্ধদ্বার বৈঠকে করেন তারেক রহমান। এরপর তারেক রহমান প্রার্থী ও কাউন্সিলরদের সঙ্গে স্কাইপের মাধ্যমে কথা বলেন।

বৈঠক ও মতবিনিময় শেষে ভোটের মাধ্যমে নতুন নেতৃত্ব নির্বাচন করার সিদ্ধান্ত হলে রাত ৯টার দিকে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাসের শাহজাহানপুরের বাসায় শুরু হয় কাউন্সিলের ভোটগ্রহণ।