মুগ্ধতা ছড়িয়ে বার্সাকে জেতালেন তরুণ ফাতি

রবিবার, সেপ্টেম্বর ১৫, ২০১৯

স্পোর্টস ডেস্ক : স্প্যানিশ জায়ান্ট ক্লাব বার্সেলোনায় জায়গা পেয়ে মুগ্ধতা ছড়িয়েই যাচ্ছেন তরুণ স্ট্রাইকার আনসু ফাতি। তার রেকর্ডের ম্যাচে জয়ে ফিরেছে বার্সা। ম্যাচটিতে ফাতি গোল করেছেন, সেই সঙ্গে গোল পেতে সহায়তাও করেছেন। ভ্যালেন্সিয়াকে ৫-২ গোলে উড়িয়ে দেয়ার এই ম্যাচে জোড়া গোল করেছেন লুইস সুয়ারেজ।

ক্যাম্প নু’য়ে শনিবার রাতে লা লিগায় ভালেন্সিয়ার মুখোমুখি হয় বার্সেলোনা। এদিন স্প্যানিশ লিগে একই ম্যাচে গোল করে এবং গোলে সহায়তা করে রেকর্ড গড়েন আনসু ফাতি।

আগের ম্যাচেই লা লিগায় বার্সেলোনার হয়ে সবচেয়ে কম বয়সী খেলোয়াড় হিসেবে গোল করা ফাতি ভালেন্সিয়ার জালে দ্বিতীয় মিনিটেই বল পাঠান। ডি ইয়ংয়ের ডান দিক থেকে বাড়ানো বল পেনাল্টি স্পটের কাছে পেয়ে জোরালো শটে প্রতিপক্ষের জাল খুঁজে পান তরুণ ফরোয়ার্ড।

পাঁচ মিনিট পর এই দুজনের জুটিতেই ব্যবধান দ্বিগুণ করে বার্সেলোনা। ফাতির এগিয়ে নেয়া বলটি ছুটে এসে প্রথম ছোঁয়ায় জোরালো শটে বল ঠিকানায় পাঠান ডি ইয়ং।

একবিংশ শতাব্দীতে সবচেয়ে কম বয়সী খেলোয়াড় হিসেবে লা লিগার কোনো ম্যাচে গোল করলেন ও করালেন ফাতি।

ম্যাচের শুরু থেকে নিজেদের ঘর সামলাতে ব্যস্ত সময় কাটানো ভালেন্সিয়া ২৭তম মিনিটে পায় লড়াইয়ে ফেরা গোলের দেখা। অফসাইডের ফাঁদ ভেঙে রদ্রিগোর দারুণ পাস ধরে কোনাকুনি শটে গোলটি করেন ফরাসি ফরোয়ার্ড কেভিন গামেইরো। ব্যাবধান তখন ২-১ গোলের।

দ্বিতীয়ার্ধের ষষ্ঠ মিনিটে প্রতিপক্ষের ভুলের সুযোগে ব্যবধান বাড়ায় বার্সেলোনা। আতোয়ান গ্রিজমানের শট ঠেকাতে গিয়ে গুলিয়ে ফেলেন গোলরক্ষক ইয়াসপের সিলেসেন। বল পোস্টে লেগে ফিরে আসলে ছুটে গিয়ে জালে ঠেলে দেন পিকে।

ফাতির জায়গায় ৬১তম মিনিটে মাঠে নামেন চোট কাটিয়ে ফেরা সুয়ারেস। বদলি নেমে প্রথম মিনিটেই দারুণ এক গোলের দেখা পান উরুগুয়ের স্ট্রাইকার। আর্থারের পাস ডি-বক্সের বাইরে পেয়ে জায়গায় দাঁড়িয়ে গোলের দিকে না তাকিয়ে শট নেন তিনি, বল পোস্টের নিচের দিকে জালে জড়ায়।

৪-১ ব্যবধানে এগিয়ে যাওয়ার পর আর ভাবতে হয়নি শিরোপাধারীদের। ৮২তম মিনিটে নিজের দ্বিতীয় গোলে সব অনিশ্চয়তার ইতি টানেন সুয়ারেস। গ্রিজমানের ছোট পাস ডি-বক্সে পেয়েই প্রথম ছোঁয়ায় জোরালো শটে কাছের পোস্ট দিয়ে বল লক্ষ্যে পাঠান অভিজ্ঞ ফরোয়ার্ড।

যোগ করা সময়ে ভালেন্সিয়ার দ্বিতীয় গোলটি করেন মাক্সি গোমেস। সেল্টা ভিগো থেকে এ মৌসুমেই আসা উরুগুয়ের এই স্ট্রাইকারের নতুন ঠিকানায় এটি প্রথম গোল।

চার ম্যাচে দুই জয় ও এক ড্রয়ে ৭ পয়েন্ট নিয়ে চতুর্থ স্থানে উঠে এসেছে বার্সেলোনা।