‘খুশিতে, ঠ্যালায়, ঘোরতে’ যেভাবে এল

সোমবার, জানুয়ারি ১৪, ২০১৯

সোস্যাল মিডিয়া ডেস্ক: সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে একটি বাক্য ভাইরাল হয়েছে। ‘এই মনে করেন ভালো লাগে, খুশিতে, ঠ্যালায়, ঘোরতে’ এমন বাক্য ঘুরছে নানাজনের ফেসবুকের সময়ক্রমে। এই ভুল শব্ধের বাক্যটি নিয়ে ফেসবুকে প্রচুর ট্রল হচ্ছে। কিন্তু কীভাবে এই বাক্যটি ফেসবুকে ভাইরাল হল তা হয় তো জানে না অনেকেই।
২০১৪ সালে অনুষ্ঠিত দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল মাই টিভির একটি সরাসরি সম্প্রচারের অংশ বিশেষ এই বাক্যটি। মাই টিভির প্রতিবেদকে এ বাক্যটি বলেছিলেন এক নারী ভোটার।

মাই টিভির সাংবাদিক মাহবুব সৈকত ২০১৪ সালের জাতীয় নির্বাচনের সময় ঢাকার-৫ আসনের একটি ভোটকেন্দ্র দনিয়া একে হাইস্কুল অ্যান্ড কলেজ কেন্দ্রের ভোটের চিত্র নিয়ে খবর সংগ্রহ করছিলেন। তখন সেখান থেকে সরাসরি সম্প্রচারে যুক্ত হন তিনি। সরাসরি সম্প্রচারের এক পর্যায়ে মাহবুব সৈকত ভোটকেন্দ্রের বাইরে লাইনে দাঁড়িয়ে থাকা কয়েকজন নারীর কাছে জানতে চান, তাদের হাতে ভোট দেওয়ার অমোচনীয় কালি দেওয়া আছে। তাহলে ভোট দেওয়ার পর আবারও তারা লাইনে দাঁড়িয়েছেন কেন?
সাংবাদিকের করা এমন প্রশ্নে কিছুটা অপ্রস্তুত হয়ে এক নারী তখন বলেছিলেন, ‘এই মনে করেন। খুশিতে, ঠ্যালায়, ঘোরতে।’

এরপর তা ফেসবুকে শেয়ার হলেও তেমন আলোচনায় আসেনি। তবে এবারের নির্বাচনের পরা তা সামাজিক যোগাযোগে ভাইরাল হয়েছে। মূলত ডাবিং অ্যাপ ‘টিকটক’ এ অনেকেই এটি নিয়ে ভিডিও নির্মাণের পর এখন এটি ফেসবুকে ভাইরাল হয়ে গেছে। এখন অনেকেই তাদের ফেসবুকে স্টাটাসে এই বাক্যটি জুড়ে দিচ্ছেন।