সুবর্ণচরে ধর্ষণ: আরেক আসামি গ্রেপ্তার

রবিবার, জানুয়ারি ৬, ২০১৯

নোয়াখালী : একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ভোট দেওয়াকে কেন্দ্র করে বিতণ্ডার জেরে নোয়াখালীর সুবর্ণচর উপজেলার স্বামী-সন্তানদের বেঁধে রেখে এক নারীকে মারধর ও গণধর্ষণের ঘটনায় আরো একজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

শনিবার রাত ২টার দিকে ফেনীর সুলতানপুর এলাকা থেকে আসামি ছালাউদ্দিনকে গ্রেপ্তার করা হয়। ছালাউদ্দিনের বাড়ি সুবর্ণচরের চর জুবলী ইউনিয়নের মধ্যম বাগ্যা গ্রামে। তাকেসহ এ মামলায় মোট আটজনকে এ পর্যন্ত গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

জেলার পুলিশ সুপার মো. ইলিয়াছ শরীফ জানান, জেলা গোয়েন্দা পুলিশ শনিবার রাত দেড়টার দিকে মামলার নয় নম্বর আসামি ছালাউদ্দিনকে ফেনী জেলার সুলতানপুরে তার এক আত্মীয়র বাড়ি থেকে গ্রেপ্তার করে।

৩০ ডিসেম্বর ওই ধর্ষণের ঘটনায় জড়িত বাকিদের ধরতে মোবাইল ফোন ট্র্যাক করে দেশের বিভিন্ন স্থানে অভিযান চলছে বলে পুলিশ সুপার জানান।

ভোটের দিন রাতে সুবর্ণচরের চরজুবলী ইউনিয়নের ৪ নম্বর ওয়ার্ডে একটি বাড়িতে এক নারীকে মারধর ও গণধর্ষণের ঘটনা ঘটে। পরে ভুক্তভোগীর স্বামী নয়জনকে আসামি করে থানায় মামলা করেন।

মামলার বাদী উল্লেখ করেন, গত ৩০ ডিসেম্বর ভোট গ্রহণ শেষে সরকারি দলের সমর্থক মোশারফ, সালাউদ্দিন ও সোহেলসহ ১০-১২ জন তার বাড়িতে ব্যাপক ভাঙচুর চালায়। এ সময় আসামিরা তাকে ও তার মেয়েসহ বাড়ির অন্যদের পিটিয়ে আহত করে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে রাখে। পরে তারা তার স্ত্রীকে ধর্ষণ করে এবং পিটিয়ে মারাত্মকভাবে আহত করে। পরদিন সকালে এলাকাবাসী এসে তাদের উদ্ধার করে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করেন।