মালিবাগে পোশাক শ্রমিক নিহতের ঘটনায় পরিবহনের চালক কারাগারে

বুধবার, জানুয়ারি ২, ২০১৯

ঢাকা : রাজধানীর মালিবাগে সুপ্রভাত পরিবহনের বাসচাপায় দুই নারী গার্মেন্ট কর্মী নিহত হওয়ার ঘটনায় ওই বাসের চালক মো. জুনায়েদকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

বুধবার (২ জানুয়ারি) দুপরে এ আসামিকে মহানগর হাকিম আদালতে হাজির করে পুলিশ। এদিন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই ফারুখ খান মামলার সুষ্ঠু তদন্তের স্বার্থে ও তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত আসামিকে জেল হাজতে আটক রাখার আবেদন করেন। আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ঢাকার মহানগর হাকিম শাহিনুর রহমান তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন। তবে এদিন আসামি পক্ষে কোন আইনজীবী ছিল না। তাই জামিন শুনানি হয়নি।

বাস দুর্ঘটনায় নিহতের ঘটনায় গতকাল রাতেই নিহত মিমের মা জরিনা বেগম বাদী হয়ে হাতিরঝিল থানায় মামলা দায়ের করেছেন।

আদালতে পাঠানো পুলিশি আবেদনে বলা হয়, প্রাথমিক তদন্তে জানা যায় উক্ত আসামি ঢাকা মেট্রো-ব- ১১-৯৬১৩ এর চালক। গত ১ জানুয়ারি হাতিরঝির থানাধীন মালিবাগ চৌধুরীপাড়া রাস্তার ওপর পথচারী নাহিদ পারভিন (১৯) ও মীম আক্তারের (১৪) ওপর দ্রুত গতিতে গাড়িচাপা দিলে ওই দুজনের মৃত্যু হয়। উক্ত আসামি ঘটনার সাথে জড়িত থাকার প্রমাণ পাওয়া গেছে। আসামির বিরুদ্ধে তদন্ত অব্যাহত রয়েছে।

গতকাল মঙ্গলবার বিকেলে মালিবাগের আবুল হোটেলের সামনে নাহিদা পারভীন পলি ও মিম আক্তার নামে দুই পোশাক শ্রমিককে চাপা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই মিমের মৃত্যু হয়। উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নেওয়া হলে মৃত ঘোষণা করা হয় পলিকেও। সড়কে বাসচাপায় দুইজন নারী গার্মেন্ট শ্রমিক নিহত হওয়ার প্রতিক্রিয়ায় সড়কে নেমে ব্যাপক ভাঙচুর চালিয়েছেন তাদের সহকর্মীরা।

নিহত দু’জনেই এমএইচ পোশাক কারখানায় শ্রমিক হিসেবে কাজ করতেন। পলি নীলফামারীর সৈয়দপুর উপজেলার মৃত ইজাজ আহম্মেদের মেয়ে। আর মিম বগুড়ার গাবতলীর উপজেলার সোনা মিয়ার মেয়ে। দু’জনে মগবাজার পূর্ব নয়াটোলায় একটি বাসায় ভাড়া থাকতেন।