জয়ের পর নেতাকর্মীদের সংযমের বার্তা দিল আ’লীগ

সোমবার, ডিসেম্বর ৩১, ২০১৮

কোম্পানীগঞ্জ (নোয়াখালী) প্রতিনিধি : একাদশ সংসদ নির্বাচনে নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেয়ে জয়লাভ করার পর নেতাকর্মীদের উদ্দেশে সংযমের বার্তা দিয়েছে আওয়ামী লীগ।

নির্বাচনে জয়ের পর দিন সোমবার নিজের জেলা নোয়াখালীতে নেতাকর্মীদের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময়কালে দলটির সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেন, বিজয় মিছিল করার কোনো প্রয়োজন নেই। নেত্রী নির্দেশনা মানতে হবে।

‘প্রতিপক্ষের ওপর কোনো প্রকার প্রতিশোধ নেয়ার নেয়া যাবে না। এসব কথা শুধু এখানে প্রযোজ্য নয়, বৃহত্তর নোয়াখালীসহ সারা দেশের জন্য প্রযোজ্য। আমাদের নেত্রী শেখ হাসিনারও একই নির্দেশনা রয়েছে।’

তিনি বলেন, নেত্রীর এ নির্দেশনা আওয়ামী লীগ ও এর অঙ্গসংগঠনের সব নেতাকর্মীকে মেনে চলার আহ্বান জানাই।

ওবায়দুল কাদের বলেন, আমি প্রতিহিংসার রাজনীতি বিশ্বাস করি না। ধৈর্য ও সহিষ্ণুতার সঙ্গে এ বিজয় উদযাপন করার জন্য। আমাদের পরবর্তী কার্যক্রম হল সব মানুষের সঙ্গে ভালো আচরণ করা।

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, ভুল সংশোধন করার সৎ সাহস শেখ হাসিনার আছে। অতীতে যদি কোনো ভুল হয়ে থাকে, আমরা অতীতের সেই ভুল থেকে শিক্ষা নিয়ে নবতর পথযাত্রার সূচনা করব।

তিনি বলেন, ভুল মানুষই করে, সব ভুল সংশোধন করে আমারা নতুন করে যাত্রা শুরু করব। উন্নয়ন ও ভালো আচরণ নিয়ে আমরা একটি ঐতিহ্যবাহী দল হিসেবে এগিয়ে যাব।

কাদের বলেন, নতুন বছরে আমরা উন্নয়নের ধারাকে অব্যাহত রাখব। রাতারাতি কোনো সমস্যার সমাধান করা সম্ভব হবে না।

তিনি বলেন, এ এলাকার ক্লোজারের মতো কঠিন কাজও আমরা করেছি। এখন দরকার গ্যাস সংযোগ ও বেকার তরুণ সমাজের কর্মসংস্থান সৃষ্টি করা। পর্যায়ক্রমে এটিও আমি করব। আজ থেকে আমি মনোযোগী হব।

‘আপনাদের বলব— আপনারা প্রতিপক্ষের প্রতি রাজনৈতিক প্রতিহিংসায় যাবেন না। যেটি আমরা অতীতেও যাইনি। ২০০১ ও ২০১৪ সালের অনেক বেদনা আছে। তখন আমাদের অনেককে ঘরবাড়ি ছেড়ে বছরের পর বছর বাইরে থাকতে হয়েছিল।’

এ সময় উপস্থিত ছিলেন নোয়াখালী জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মোহাম্মদ শাহাব উদ্দিন, বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জা, নোয়াখালী জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান বাদল, কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা খিজির হায়াত খান, সহসভাপতি ইস্কান্দার হায়দার চৌধুরী বাবুল, সাধারণ সম্পাদক নূর নবী চৌধুরী, সাংগঠনিক সম্পাদক মুক্তিযোদ্ধা আবু নাছের, আমেরিকা প্রবাসী সরকারি মুজিব কলেজ ছাত্রলীগের সাবেক ভিপি সেলিম চৌধুরী বাবুল, কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা যুবলীগের সভাপতি ও ভাইস চেয়ারম্যান আজম পাশা চৌধুরী রুমেল, সাধারণ সম্পাদক গোলাম ছরওয়ার, কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি নাজিম উদ্দিন মুন্না, সরকারি মুজিব কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি নূর এ মাওলা রাজু প্রমুখ।