ইসির বিচার হয় কিনা তা দেখার অপেক্ষায় খোকন

সোমবার, ডিসেম্বর ৩১, ২০১৮

ঢাকা: দেশে মুরগি চুরি করলে তা বিচার হলেও সংবিধান লঙ্ঘনের দায়ে নির্বাচন কমিশনের (ইসি) বিচার হয় কিনা তা দেখার অপেক্ষায় বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব মাহবুব উদ্দিন খোকন।

সোমবার (৩১ ডিসেম্বর) বিকেলে আগারগাঁওয়ে নির্বাচন ভবনে সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেনন তিনি।

মাহবুব উদ্দিন খোকন বলেন, ‘বাংলাদেশে মুরগি চুরি করলে বিচার হয়। এই যে নির্বাচন কমিশন সংবিধান লঙ্ঘন করেছে আমি নির্বাচন কমিশনের এই সংবিধান লঙ্গনের জন্য বিচার দাবি করেছি। মুরগি চুরির বিচার হয়, দেখা যাক সংবিধান লঙ্ঘনে এই নির্বাচন কমিশনের বিচার হয় কি না।’

তিনি বলেন, ‘আগে এক মাস দেখেছি সরকারি দলের আওয়ামী লীগের লোকেরা তাণ্ডব করেছে। অস্ত্র প্রদর্শন করেছে। কয়েক বার অবেদন দিয়ে গেছি। নির্বাচন কমিশনে অস্ত্র উদ্ধারের জন্য। আমি তিন বার এসছি, কোনো পদক্ষেপ গ্রহণ করেনি। কোন ভূমিকা পালন করেনি। এমকি নির্বাচনের আগে ডিসি ফোনই ধরেনি। সেনাবাহিনী, র‌্যাব, বিজিবি রাতে প্রতিটি ভোট কেন্দ্রে বোমাবাজি করেছে, সঙ্গে পুলিশও ছিল। সাধারণ ভোটাররা ভোট কেন্দ্রে আসতে পারেনি। ভোট সিল মারতেছে আমি জানিয়েছি, টেলিফোন করেছি। সকালে ১০০টি ভোট কেন্দ্রে কোথাও এজেন্ট ঢুকতে দেয়নি। কোথাও ঢুকতে দিয়ে পরে আবার বের করে দিয়েছে। আমার নির্বাচনী এজেন্ট গুরুতর আহত হয়েছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘নির্বাচন কমিশন আমার এলাকায় নোয়াখালি -১ ও সারাদেশে সরকারের সঙ্গে আতাঁত করে তারা নির্বাচন করেছে। ভোটারদের সঙ্গে প্রতারণা করেছে, জাতির সঙ্গে প্রতারনা করেছে।’

আপনি কত ভোটে হেরেছেন এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘গড়ে সারা বাংলাদেশে বিরোধী দলকে ভোট দিয়েছে ১৫ হাজার। ২০ -২৫ টি নির্বাচনী এলাকায় একটু বেশি ভোট পড়েছে। আমি গড়ের ভোট পেয়েছি।’

এই নির্বাচনে নির্বাচন কমিশন, সরকার, আদালত এক হয়ে জাতির সঙ্গে প্রতারণা করেছে বলে জানান খোকন।