রাহুলকেই প্রধানমন্ত্রী হিসেবে চান শশী থারুর

রবিবার, ডিসেম্বর ৩০, ২০১৮

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : রাহুল গান্ধীর ভেতর প্রধানমন্ত্রী হওয়ার সব গুণ আছে। এমনই জানালেন কংগ্রেস নেতা শশী থারুর। ২০১৯ লোকসভা নির্বাচনের পর মহাজোটের সদস্যদের মতামতের ভিত্তিতে ঠিক হওয়ার কথা প্রধানমন্ত্রী।

কিন্তু তার আগে রাহুলের নাম তুলে বিতর্ক বাড়িয়ে দিলেন কংগ্রেস নেতা। কয়েকদিন আগে তামিলনাড়ুর নেতা স্তালিনও রাহুলকে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে সমর্থন করেন। এবার শশী থারুরের এই মন্তব্যে নতুন করে ঝড় উঠেছে।

পাঁচ রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচনে ভাল ফলাফল করেছে কংগ্রেস। তারপরই এবার লোকসভা নির্বাচনে ভাল ফল করার প্রত্যাশা শুরু করেছে কংগ্রেসের শীর্ষ নেতৃত্ব। আর প্রধানমন্ত্রী হিসেবে নাম উঠে আসছে রাহুল গান্ধীর।

কিন্তু কংগ্রেসকে প্রধানমন্ত্রীর পদ ছাড়তে রাজি নয় অন্য বিরোধীগুলো। কংগ্রেস যেভাবে রাহুল গান্ধীর নাম প্রস্তাবে বলছে, তাতে মহাজোট নিয়ে আশঙ্কা ঘনীভূত হচ্ছে। তবে প্রধানমন্ত্রী পদপ্রার্থী জোটসঙ্গীদের সঙ্গে আলোচনা করেই হবে বলে দাবি থারুরের।

সাক্ষাৎকারে শশী থারুর বলেন, “রাহুল গান্ধীই আমাদের নেতা। কংগ্রেস সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেলে তিনিই প্রধানমন্ত্রী হবেন। যদি জোটের সরকার হয়, তবে জোটসঙ্গীদের সঙ্গে অবশ্যই আলোচনার মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী বেছে নেওয়া হবে।”

তিন রাজ্যে নির্বাচনে জয়ের পর কংগ্রেস যে জোটসঙ্গীদের উপর প্রভাব খাটাবে, তার আশঙ্কা আগেই ছিল। কিন্তু জোটের পথ খুলে রাখলেন শশী থারুর।

তিনি বলেন, “সবার মত নিয়েই সিদ্ধান্ত হবে। নির্বাচনের পর ফলাফল দেখেই সেই সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। এই মুহূর্তে আমি কংগ্রেস সভাপতির সঙ্গে ব্যক্তিগতভাবে কথা বলে বুঝেছি, রাহুলের মধ্যে দেশের ভাল প্রধানমন্ত্রী হওয়ার সব গুণ আছে।”

দেশের অন্য বিরোধীদের মতামত না নিয়ে রাহুল গান্ধীকে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দেখালে সমীকরণ পালটে যেতে পারে।

শশী থারুর মনে করেন, রাহুলের মধ্যে নেতৃত্ব দেওয়ার ভাল ক্ষমতা আছে। রাজনৈতিক ভেদাভেদ ভুলে সবার সঙ্গে মিশতে পারেন তিনি। সমাজের সর্বস্তরের মানুষের প্রতি সমব্যথী। তাই প্রধানমন্ত্রী হওয়ার সব গুণ রাহুলের মধ্যে আছে।