মৃণাল সেনকে নিয়ে অমিতাভের স্মৃতিচারণ

রবিবার, ডিসেম্বর ৩০, ২০১৮

বিনোদন ডেস্ক : কিংবদন্তি চলচ্চিত্র পরিচালক মৃণাল সেনের মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছেন চলচ্চিত্র জগতের বিশিষ্ট ব্যক্তিরা। শোক প্রকাশ করেছেন অমিতাভ বচ্চনও।

অমিতাভ একটি টুইট বার্তায় স্মরণ করেছেন, ‘খারিজ’ পরিচালককে। জানিয়েছেন, মৃণাল সেনের মৃত্যুতে তিনি অত্যন্ত মর্মাহত।

তার চলে যাওয়াটাকে অত্যন্ত দুঃখজনক হিসেবেও অখ্যায়িত করেছেন অমিতাভ।

তিনি লিখেছেন, তার জীবনের প্রথম ভয়েস ওভারটা কিন্তু মৃণাল সেনের ছবিতেই। ১৯৬৯ সালে ‘ভুবন সোম’ ছবিতে তিনি ভয়েস ওভার করেছিলেন। সেই বছরই ‘সাত হিন্দুস্তানি’ ছবিতে বলিউডে ডেবিউ করেন অমিতাভ।

বাসু চট্টোপাধ্যায় পরিচালিত ‘মঞ্জিল’ ছবিতে কাজ করেছিলেন অমিতাভ। মৃণাল সেনের ‘আকাশকুসুম’ ছবিটির গল্প থেকে অনুপ্রাণিত ছিল এই ছবির গল্প।

‘একদিন প্রতিদিন’ পরিচালকের চলে যাওয়ায় রবি ঠাকুরের কবিতায় শোকপ্রকাশ করেছেন পরিচালক মহেশ ভট্ট।

তিনি লিখেছেন, ‘পেয়েছি ছুটি, বিদায় দেহ ভাই– সবারে আমি প্রণাম করে যাই।’ মহেশ ধন্যবাদও জানিয়েছেন মৃণালকে। লিখেছেন, তার জীবনকে ছুঁয়ে গিয়েছেন ‘মৃণালদা’, তার চেতনাকে অন্য ভাবে জাগিয়ে তুলেছিলেন সদ্যপ্রয়াত পরিচালক।

অভিনেত্রী-পরিচালিকা নন্দিতা দাস লিখেছেন, ‘নভেম্বরের ১১ তারিখেও মৃণালবাবুর সঙ্গে দেখা হয়েছিল। হাত ধরেছিলাম। মৃণালদা, দ্য ওয়ার্ল্ড, আর আমার পৃথিবীটা মৃণালদার অনুপস্থিতিতে কখনওই এক রকম থাকতে পারে না।’

মৃণাল সেনের প্রয়াণে শোক প্রকাশ করেছেন, পরিচালক মধুর ভাণ্ডারকর, সুজিত সরকার, অভিনেতা মনোজ বাজপেয়ী। শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করে টুইট করেছেন প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়-সহ টলিউডের একাধিক তারকা।

মনোজ বাজপেয়ী তার টুইটারে উল্লেখ করেছেন, মৃণাল বাবু এক জন সত্যিকারের কথক, তার একজন অনুপ্রেরণা। প্রজন্মের পর প্রজন্ম ধরে মৃণাল বাবুর ছবি শিল্পীদের কাছে অনুপ্রেরণা।

মধুর ভাণ্ডারকরও উল্লেখ করেছেন ২০১৫ সালে ‘মৃণাল সেন দা’-র সঙ্গে কলকাতার বাড়িতে মধুরের দেখা করার সৌভাগ্য হয়েছিল, এমনটাও উল্লেখ করেছেন ‘পেজ থ্রি’ পরিচালক।

মালয়ালম সুপারস্টার মোহনলাল-সহ দক্ষিণ ভারতীয় ছবির জগতের একাধিক তারকারাও শোকপ্রকাশ করেছেন মৃণাল বাবুর মৃত্যুতে।

তথ্যসূত্র: আনন্দবাজার