বরিশালে ১০ অভিযোগের ৩ টিই পুলিশের বিরুদ্ধে

বুধবার, ডিসেম্বর ২৬, ২০১৮

বরিশাল : একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বরিশালের ৬টি আসনে প্রতিদ্বন্দী প্রার্থীদের পক্ষ থেকে রিটার্নিং অফিসারের কাছে বেশকিছু অভিযোগ দেয়া হয়েছে। যারমধ্যে সুনিদৃস্ট ১০টি অভিযোগ তদন্তের জন্য রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয় থেকে নির্বাচনী তদন্ত কমিটি ও পুলিশ প্রশাসনের কাছে পাঠানো হয়েছে। রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয় সূত্রে জানাগেছে, প্রচারনার মাঝামাঝি সময় থেকে বরিশাল জেলার ৬টি আসন থেকে আচারবিধি লঙ্ঘন সংক্রান্ত বেশকিছু অভিযোগ রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয়ে এসেছে।

যারমধ্যে কিছু অভিযোগের সূত্র ধরে প্রার্থীসহ সংশ্লিষ্টদের কারন দর্শাতে বলা হয়েছে।তবে রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয়ে জমা পড়া সুনিদৃস্ট ১০টি অভিযোগের মধ্যে বেশিরভাগ অভিযোগই বিএনপি বা ঐক্যফ্রন্টের ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থীদের পক্ষ থেকে দেয়া হয়েছে, যেখানে আচরণ বিধি লঙ্ঘন, হামলা, ভাংচুর ও মারধরের অভিযোগের কথা তুলে ধরা হয়েছে ।

অভিযোগগুলোর মধ্যে বরিশাল-৪ (হিজলা-মেহেন্দিগঞ্জ) আসনের বর্তমান সাংসদ পংকজ নাথ-এমপি’র বিরুদ্ধে রয়েছে ২ টি, যার একটি করেছেন বরিশাল উত্তর জেলা বিএনপির সভাপতি মেজবাহ উদ্দিন ফরহাদ ও অপরটি করেছেন ঐক্যফ্রন্টের ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থী জে এম নুরুর রহমান।এছাড়া বরিশাল-৬ (বাকেরগঞ্জ) আসনে সিংহ মার্কার স্বতন্ত্র প্রার্থী মোঃ আলী তালুকদারের পক্ষ থেকে সরাসরি বর্তমান সাংসদ নাসরিন জাহান রতনা ও তার স্বামী রুহুল আমিন হাওলাদার-এমপিসহ সমর্থকদের বিরুদ্ধে অভিযোগ দেয়া হয়েছে। অপরদিকে স্বতন্ত্র এই প্রার্থীর দেয়া অপর অভিযোগটি সরাসরি বাকেরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তার বিরুদ্ধে।

এছাড়া পুলিশের বিরুদ্ধে আরো ২ টি অভিযোগ দেয়া হয়েছে রিটার্নিং কর্মকর্তার নিকট। যেদুটি অভিযোগই বরিশাল-৫ (সদর) আসনের বিএনপির ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থী মজিবর রহমান সরওয়ারের পক্ষে তার নির্বাচনী আচরবিধি সর্ম্পকিত কমিটির আহবায়ক এ্যাডভোকেট মোঃ মহসিন মন্টু কর্তৃক দেয়া হয়েছে। অভিযোগে তিনি পুলিশের বিরুদ্ধে নির্বাচনে অসমতল ক্ষেত্র প্রস্তুত, নির্বাচনীয় প্রচার সভায় বাধা দেওয়ায়সহ আচারবিধি লঙ্ঘনের কথা উল্লেখ করেছেন।

এছাড়া এ্যাডভোকেট মোঃ মহসিন মন্টু আওয়ামীলীগ নেতাদের বিরুদ্বে আরো ২ টি লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে।অপরদিকে বরিশাল-৫ (সদর) আসনে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের প্রার্থী পক্ষে নির্বাচন পরিচলনা কমিটির সদস্য সচিব মুহাম্মাদ জাকারিয়া হামিদী এবং বরিশাল-৬ আসনের প্রার্থী ওসমান হোসেনের পক্ষে তার প্রতিনিধি নির্বাচীনয় প্রচারনায় হামলা ভাঙ্গচুর ও মারধেরের অভিযোগ করেছেন।

বরিশালের রির্টানিং অফিসার ও জেলা প্রশাসক অজিয়ার রহমান জানান, প্রার্থীদের কাছ থেকে যখন যে অভিযোগ পাওয়া গেছে, তা তখনই খতিয়ে দেখা হয়েছে। আর সুনিদৃস্ট ১০টি অভিযোগের তদন্ত করে বিধি মোতাবেক ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য নির্বাচন তদন্ত কমিটি চেয়ারম্যানসহ মেট্রোপলিটন পুলিশের কমিশনার ও জেলা পুলিশ সুপারের কাছে পাঠানো হয়েছে।

এদিকে সর্বোশেষ গত সোমবার আরো ৩ টি লিখিত অভিযোগ পেয়েছেন রিটার্নিং অফিসার। যারমধ্যে একটি বরিশাল-৫ (সদর) আসনের ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থীর পক্ষ থেকে ও অপর দুটি বরিশাল-৪ (হিজলা-মেহেন্দিগঞ্জ) আসনের ধানের শীষ প্রতীকের পক্ষ থেকে দেয়া হয়েছে। যেগুলো বিষয়েও বিধি মোতাবেক ব্যবস্থা গ্রহনের কার্যক্রম চলমান রয়েছে।