দেশে ফিরেছেন এরশাদ

বুধবার, ডিসেম্বর ২৬, ২০১৮

ঢাকা: দীর্ঘ ১৬ দিন পর দেশে ফিরেছেন সাবেক রাষ্ট্রপতি ও জাতীয় পার্টির (জাপা) চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ। সিঙ্গাপুর এয়ারলাইন্সের একটি বিমানে করে বুধবার (২৬ ডিসেম্বর) রাতে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছান তিনি।

এরশাদের দেশে ফেরার তথ্য নিশ্চিত করেছেন বিমানবন্দরের ফ্লাইট অপারেশন কর্মকর্তা জাহিদুল ইসলাম।

তিনি বলেন, সিঙ্গাপুর এয়ারলাইন্সের এসকিউ-৪৪৬ ফ্লাইটে করে আজ রাত ৯টায় হযরত শাহজালাল বিমানবন্দরে পৌঁছেন এরশাদ।

এর আগে দলীয় মনোনয়ন চূড়ান্ত করার আগেই অসুস্থ হয়ে সিএমএইচে যান এরশাদ। অবস্থা গুরুতর দাবি করে তাকে বিদেশে পাঠানোর আলোচনার মধ্যেই হঠাৎ প্রকাশ্যে এসে তিনি দাবি করেন চিকিৎসার জন্য তাকে বিদেশে যেতে দেয়া হচ্ছে না। কে বা কারা তার বিদেশ যাত্রায় বাধা দিচ্ছে তা অবশ্য জাতীয় পার্টির কেউ স্পষ্ট করেন নি। দলীয় মনোনয়ন চূড়ান্ত করেই এরশাদ চিকিৎসার জন্য সিঙ্গাপুর যান। তিনি গত ১০ ডিসেম্বর ‘উন্নত চিকিৎসার জন্য’ সিঙ্গাপুরে যান।

মঙ্গলবার তার দেশে ফেরার কথা ছিল। দলের পক্ষ থেকে এ তথ্য দেয়ার পর রাতে ফের জানানো হয় তিনি আসছেন না। সবশেষ আজ দেশে ফিরলেন তিনি।

জাতীয় পার্টির নেতারা বলে আসছেন, ‘রক্তে হিমোগ্লোবিন কমে যাওয়ায়’ অসুস্থ হয়ে পড়েছিলেন ৮৮ বছর বয়সী এরশাদ। দেশে থাকতে তাকে নিয়মিত সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) যাওয়া-আসা করতে হচ্ছিল।

২০১৪ সালে দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগেও তাতে অংশ না নেয়ার ঘোষণা দিয়ে এরশাদ নাটকীয় অসুস্থতা নিয়ে সিএমএইচে ভর্তি হয়েছিলেন। কিন্তু সেখানে ভর্তি থাকা অবস্থায় তিনি এমপি নির্বাচিত হন এবং পরে প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ দূতের দায়িত্ব পান।

এবারও একাদশ সংসদ নির্বাচনের আগে জাতীয় পার্টির প্রার্থীদের সাক্ষাৎকার গ্রহণের সময় ‘অসুস্থ’ এরশাদের সিএমএইচে ভর্তির খবর এলে নতুন করে আলোচনা শুরু হয়।

মহাজোটের প্রধান দল আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের অবশ্য বলেছিলেন, এরশাদের এবারের অসুস্থতা ‘রাজনৈতিক’ নয়, তিনি ‘সত্যিই’ অসুস্থ।

এই অসুস্থতা নিয়ে এরশাদের ভাই ও দলের কো-চেয়ারম্যান জি এম কাদের বলেছিলেন, এই বয়সে যতটা অসুস্থ হয় মানুষ, তার ভাই তেমনই অসুস্থ।