পদোন্নতির প্রতিশ্রুতিতে টানা ৩ বছর ধর্ষণ!

সোমবার, ডিসেম্বর ২৪, ২০১৮

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : চাকরিতে পদোন্নতির প্রলোভন দেখিয়ে এক নারীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে দুই সরকারি কর্মীর বিরুদ্ধে। অভিযুক্তদের মধ্যে এক কর্মীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের উত্তরবঙ্গের দক্ষিণ ২৪ পরগনার ফলতার দোস্তপুরে।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এএনআই এর প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, শারীরিক নির্যাতনের পাশাপাশি ওই নারীর কাছ থেকে ৮০ হাজার টাকা অর্থও নিয়েছে অভিযুক্তরা।

তালাকপ্রাপ্ত ওই নারী ফলতা থানার এইটি সরকারি অফিসে রান্নার সহকারীর কাজ করেন। বছর তিনেক আগে অলোক নাইয়া ও চন্দ্র বাবু নামে দুই সরকারি কর্মী তাকে চাকরিতে পদোন্নতি করিয়ে দেবেন বলে আশ্বাস দেন।

চাকরিতে ঊর্ধ্বতনের কথা শুনে ওই নারী প্রথমে ৫০ হাজার টাকা দেন অভিযুক্তদের। এর পরই একদিন তার বাড়িতে যান আলোক ও চন্দ্র। বাড়িতে এসেই তাকে কুপ্রস্তাব দেন তারা। রাজি না হওয়ায় তাকে ধর্ষণ করা হয়েছে বলে অভিযোগ করেন ওই নারী।

এর পর টানা তিন বছর ধরে ওই নারীকে ধর্ষণ করে ওই দুই অভিযুক্ত। পাশাপাশি বকেয়া ৩০ হাজার টাকাও নির্যাতিতার কাছ থেকে আদায় করে নেন অভিযুক্তরা।

ওই নারীর অভিযোগ, টাকা নেওয়ার পর তাকে প্রাণনাশের হুমকি দিতে শুরু করে অভিযুক্ত আলোক ও চন্দ্র। অবশেষে স্থানীয় ফলতা থানায় অভিযোগ দায়ের করেন তিনি।

অভিযোগের ভিত্তিতে একজনকে গ্রেপ্তার করা হলেও অপরজন এখনও পলাতক আছেন বলে জানিয়েছে ফলতা থানার পুলিশ।