নির্বাচনে প্রশাসনের নিরপেক্ষতা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে আন্তর্জাতিক পর্যবেক্ষক সংস্থা- এনফ্রেল

সোমবার, ডিসেম্বর ২৪, ২০১৮

ঢাকা: একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নির্ধারিত সময়ের মধ্যে বেশিরভাগ আন্তর্জাতিক পর্যবেক্ষককে ছাড়পত্র ও ভিসা না দেওয়ায় ব্যাংককভিত্তিক আন্তর্জাতিক নির্বাচন পর্যবেক্ষণ সংস্থা দ্য এশিয়ান নেটওয়ার্ক ফর ফ্রি ইলেকশন (এনফ্রেল) তাদের নির্বাচন পর্যবেক্ষণ মিশন বাতিল করার পর এবার নির্বাচনে প্রশাসনের নিরপেক্ষতা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে।

সংস্থাটির ওয়েবসাইটে দেওয়া এক বিবৃতিতে এ নিয়ে হতাশাও প্রকাশ করা হয়েছে।

সংস্থাটি বলছে, নির্বাচনে পর্যবেক্ষকদের উপস্থিতি স্বচ্ছতা এবং জনসাধারণের আস্থার মাত্রা নির্ধারণের একটি গুরুত্বপূর্ণ সূচক। পর্যবেক্ষকদের তথ্য জানার সুযোগ থেকে বঞ্চিত করা, তাদের চলাচলে নিষেধাজ্ঞা আরোপ এবং গণতান্ত্রিক চর্চা থেকে বিরত রাখার যে কৌশলের আশ্রয় নিয়েছে বাংলাদেশ, তাতে দেশটির প্রশাসনের নিরপেক্ষতা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। আমরা যেকোনো সামাজিক সংগঠনের স্বাধীনতায় হস্তক্ষেপের তীব্র নিন্দা জানাই।

এনফ্রেল জানায়, নির্বাচন কমিশন (ইসি) থেকে ছাড়পত্র এবং পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে ভিসা দিতে উল্লেখযোগ্য দেরি করার কারণে গত ২২ ডিসেম্বরে নির্বচন পর্যবেক্ষণ মিশন বাতিল করতে বাধ্য হয়েছে এনফ্রেল। ছাড়পত্র পাওয়ার জন্য গত ২৬ নভেম্বর কাগজ-পত্র দাখিলের মাধ্যমে আবেদন করে তাদের পক্ষ থেকে ছাড়পত্র দেওয়ার অনুরোধ করা হয়েছিলো। কিন্তু, নির্বাচনের মাত্র ৯ দিন আগে গত ২১ ডিসেম্বর এনফ্রেলের ৩২টি আবেদনের প্রেক্ষিতে মাত্র ১৩ জন পর্যবেক্ষককে ছাড়পত্র দেওয়া হয়। এনফ্রেলের মিশন প্রত্যাহারের ফলে আন্তর্জাতিকভাবে অনুমোদিত নির্বাচন পর্যবেক্ষকদের কেউই বাংলাদেশের আসন্ন নির্বাচন পর্যবেক্ষণ করবে না।