খাগড়াছড়িতে নির্বাচনী পরিবেশ নেই দাবী বিএনপির

সোমবার, ডিসেম্বর ২৪, ২০১৮

খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি : খাগড়াছড়িতে নির্বাচনী পরিবেশ নেই উল্লেখ করে বিএনপির ধানের শীষের প্রার্থী মো: শহীদুল ইসলাম ভূইয়া (ফরহাদ) অভিযোগ করেছেন, খাগড়াছড়ির বিভিন্ন উপজেলা বিএনপির নির্বাচনী এজেন্টসহ দলীয় নেতাকর্মীদের লাগাতার হামলা, মারধর, দোকানপাট-বাড়ী ঘরে ভাংচুর ও মিথ্যা মামলায় আসামী করে পুলিশী গ্রেপ্তারের ফলে নির্বাচনী পরিবেশ বজায় নেই এ জেলায়।

সোমবার সকাল ১০টায় কলাবাগানস্থ মিল্লাত চত্বরে বিএনপির নির্বাচনী প্রধান কার্যালয়ে এক প্রেস ব্রিফিং’এ এসব অভিযোগ করেন তিনি। এতে খাগড়াছড়ি জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক এমএন আফসার, যুগ্ম সম্পাদক অনিমেষ চাকমা রিংকু,পল্লী উন্নয়ন ও সমাবায় সম্পাদক মোশাররফ হোসেন, জেলা যুবদলের সাধারণ সম্পাদক ইব্রাহীম খলিলসহ দলের নেতাকর্মীরা অংশ নেয়।

প্রার্থী শহীদুল ইসলাম অভিযোগ করে বলেন, খাগড়াছড়িতে বেপরোয়া হয়ে উঠেছে আওয়ামীলীগ। তারা লাগামহীন ভাবে নির্বাচনী প্রচারণায় বাঁধা,মাইক ভাংচুর, নেতাকর্মীদের হামলা চালিয়ে চলেছে।

অথচ পানছড়িসহ বেশ কয়েকটি উপজেলায় উল্টো আওয়ামীলীগ দলীয় নেতাকর্মীরা ঘটনা ঘটিয়ে বিএনপি নেতাকর্মীদের মিথ্যা মামলা দিয়ে ৯টি মামলায় প্রায় ৫৭৩ জন নেতাকর্মীদের আসামী করেছে। তার মধ্যে ১১ জনকে গ্রেপ্তারও করা হয়েছে। এ পর্যন্ত আহত হয়েছে অনন্ত ৭০ নেতাকর্মী। এছাড়াও বাড়িতে বাড়িতে মা-বোনদের শ্লীলতাহীনরও অভিযোগ আনেন তিনি।

এছাড়াও মানিকছড়ি,রামগড়,দীঘিনালাসহ উপজেলায় উপজেলায় বিএনপির প্রচারণায় বাঁধা দেওয়ার চিত্র তুলে ধরে বলেন, সন্ত্রাসী কর্মকান্ডের মাধ্যমে জনসমর্থন আদায় করা যায় না। তাই সন্ত্রাসের পথ পরিহার করে সুষ্ঠ নির্বাচনে সহযোগিতা প্রদানে সরকার দলকে আন্তরিক হওয়ার আহবান জানান তিনি।

সরকার দলীয় প্রার্থীর আচরণ বিধি লঙ্ঘন সহ লাগাতার হামলা,ভাংচুর,মারধরের বিষয়ে নির্বাচন কমিশনসহ সংশ্লিষ্ট প্রশাসনকে জানিয়েও কোন প্রতিকার পায়নি বলে অভিযোগ করে শেষ পর্যন্ত নির্বাচনী পরিবেশ বজায় রাখতে না পারলে জনগণকে সাথে নিয়ে রির্টানিং অফিসারের কার্যালয় ঘেরাও’র জন্য মানুষিক ভাবে বিএনপি প্রস্তত বলে ঘোষনা দেন।