মনের মানুষের প্রশংসা পেলেন আনুশকা

রবিবার, ডিসেম্বর ২৩, ২০১৮

বিনোদন ডেস্ক : বেশ কয়েক বছর ধরে ভিন্নধর্মী ভূমিকায় অভিনয় করে দু’হাত ভরে দর্শক-সমালোচকের প্রশংসা কুড়িয়ে যাচ্ছেন বলিউড সুন্দরী আনুশকা শর্মা।

ফের ব্যতিক্রম চরিত্র নিয়ে ফিরেছেন এ অভিনেত্রী। নিজের প্রথম ছবিতে সুপারস্টার শাহরুখ খানের সঙ্গে জুটি বেঁধে ঝড় তুলেছিলেন তিনি। এবারও তাঁদের রোমান্স নিয়ে হাজির হয়েছে ‘জিরো’।

নতুন সিনেমায় আনুশকার ভূমিকা সেরিব্রাল পালসি রোগে ভোগা নাসার বিজ্ঞানী আফিয়া ইউসুফজাই ভিন্দার। কথায় জড়তা তাঁর। সারাক্ষণ হুইলচেয়ারে বসা। এতসব প্রতিবন্ধকতা নিয়েও প্রেমিকের মন জয় করার নেশায় কাতর আনুশকা ওরফে আফিয়া।

বাস্তব জীবনেও এমন প্রেমকাতর আনুশকা। ক্রিকেটভক্তদের চোখে পৃথিবীর অন্যতম সেরা ব্যাটসম্যান বিরাট কোহলি, আর আনুশকার চোখে পৃথিবীর সেরা পুরুষটিও তিনি। সেই ঘরের মানুষ, মনের মানুষ কোহলি দেখেছেন স্ত্রীর ‘জিরো’। করেছেন অভিনয়ের প্রশংসা।

ভারতের অধিনায়ক বিরাট কোহলি এখন অস্ট্রেলিয়ায় ক্রিকেট সফরে। প্রথম টেস্ট জিতলেও পরের টেস্টে হেরে যায় তাঁর দল। তবে ব্যাটে ব্যক্তিগত সাফল্য রয়েছে তাঁর। এর ফাঁকেই সময় বের করে দেখে নিয়েছেন প্রিয় স্ত্রীর নতুন সিনেমাটি।

টুইটার-বার্তায় ‘জিরো’র প্রশংসাও করেছেন বিরাট কোহলি। বিশেষ করে তাঁর স্ত্রীর অভিনয়ের প্রশংসা। কোহলির টুইট, ‘২১ ডিসেম্বর জিরো দেখেছি। বেশ উপভোগ করেছি ছবিটি। সবাই তাঁদের ভূমিকায় ভালো করেছেন। আনুশকার পারফরম্যান্সে মুগ্ধ, কারণ আমি মনে করি তার চরিত্র ছিল বেশ চ্যালেঞ্জিং এবং সে এককথায় দুর্দান্ত।’

আনুশকা আগের ছবিতে মমতা চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন। ‘সুই ধাগা’ সিনেমায় তাঁর সহশিল্পী ছিলেন বরুণ ধাওয়ান। সাধারণ এক দর্জি দম্পতির ভূমিকায় আনুশকা-বরুণের অভিনয় ব্যাপক প্রশংসা পেয়েছিল।

মেলবোর্নের একটি মলে বিরাট কোহলিকে দেখা গেছে, যেখানে তিনি ‘জিরো’ দেখেছেন।

গত বছর ডিসেম্বরে সাতপাকে বাঁধা পড়েন আনুশকা-কোহলি। ১১ ডিসেম্বর ছিল তাঁদের প্রথম বিবাহবার্ষিকী। ‘জিরো’র প্রচারণা থেকে স্বল্প সময়ের জন্য ছুটি নিয়ে অস্ট্রেলিয়ায় উড়াল দিয়েছিলেন আনুশকা। কাজ আর ব্যক্তিগত জীবন দুটোই ভালো সামলাতে জানেন ৩০ বছর বয়সী এ অভিনেত্রী।

দশ বছর আগে ‘রব নে বানা দি জোড়ি’ সিনেমা দিয়ে বলিউডে অভিষেক হয়েছিল আনুশকা শর্মার। ‘জিরো’র পর শাহরুখের সঙ্গে জুটি বেঁধে তাঁর সিনেমা সংখ্যা দাঁড়াল চারে। এ সিনেমার আরেক চরিত্রে ক্যাটরিনা কাইফ, যিনি রয়েছেন মদারু তারকা ববিতা কুমারীর ভূমিকায়।

২০১২ সালে ‘জব তক হ্যায় জান’ সিনেমায় শাহরুখ-আনুশকা-ক্যাটরিনা ত্রয়ীকে দেখেছিল হিন্দি চলচ্চিত্র দর্শক। ছয় বছর পর ফের ছয় হাত এক করে পর্দায় উঠলেন তিন তারকা। সূত্র : হিন্দুস্তান টাইমস।