মনছুঁতে পারলো না ‘জিরো’! (ভিডিও)

শুক্রবার, ডিসেম্বর ২১, ২০১৮

বিনোদন ডেস্ক : গত বছর শাহরুখ খান অভিনীত ‘রইস’ ও ‘জাব হ্যারি মেট সেজল’ সিনেমা দুটি বক্স অফিসে খুব একটা সাফল্য পায়নি। ২০১৮ সালের শেষে চমক নিয়ে হাজির হবেন, এই কথা আগেই জানিয়েছিলেন। সেই কথা অনুযায়ি আজ শুক্রবার (২১ ডিসেম্বর) ‘জিরো’ নিয়ে হাজির হয়েছেন বলিউড বাদশা।

‘জাব তক হ্যায় জান’ ছবির শাহরুখ-ক্যাটরিনা-আনুশকা ফের জুটি বেঁধেছেন এই ছবিতে। রেড চিলিস এন্টারটেইনমেন্টের ব্যানারের আনন্দ এল রায় পরিচালিত এই সিনেমাটি নিয়ে দর্শকের আগ্রহ অনেকটা বেশি। সিনেমার বামন অবতার বাউয়া সিংয়ের চরিত্রে দেখা দিয়েছেন শাহরুখ। এখানে দেশের সবথেকে বড় সুপারস্টার বামন অবতারে অভিনয় করছেন এটাই সিনেমাপ্রেমীদের আলোচনার বিষয় হয়ে ওঠে।

একজন মানুষের পরিচয় তার চরিত্রের উপর নির্ভর করে, উচ্চতার উপর নয়। এই কথাটা আমার প্রতিদিনের বিভিন্ন কথোপকথনে শুনে থাকব। তবে এই বক্তব্যকেই একটু অন্যভাবে সিনেমার পর্দায় তুলে ধরেছেন পরিচালক আনন্দ এল রাই, তার ‘জিরো’ ছবিতে। কিন্তু কেমন হল ছবিটি?

‘জিরো’-র বিষয়বস্তু:

ববিতা কুমারী (ক্যাটরিনা কাইফ) বাথটাবে ঝড় তোলার রূপোলি পর্দায় এই তারকা এবার পাবলিক অ্যাপিয়ারেন্সের জন্য বের হবেন। যেখানে ইতিমধ্যেই তিনি দেরি করে ফেলেছেন। চট জলদি তৈরি হওয়ার জন্য তিনি তার ড্রেস ও মেকআপের জন্য জিজ্ঞাসা করতে থাকেন। সেই সময় টি-শার্ট ও বক্সার শর্টস পরে রয়েছেন। তারপর চুল মাথার সামনে নামিয়ে তার মনে হয় তিনি যথেষ্ট ফর্সা তার মেকআপের কী প্রয়োজন? এভাবেই ফিল্মি দুনিয়ার সুন্দরী হট নায়িকার চরিত্রে অভিনয় করেছেন ক্যাটরিনা।

অন্যদিকে তারকা ববিতার অন্যতম বড় ভক্ত মিরাটের বাসিন্দা বাউয়া সিং (শাহরুখ খান)। বামন বাউয়া সিং স্বপ্ন দেখে সে একদিন না একদিন তার স্বপ্নের ববিতা কুমারীর সঙ্গে দেখা করে তবেই ছাড়বে। তবে ববিতার সঙ্গে দেখা হওয়ার আগেই বাউয়ার সঙ্গে দেখা হয় মহাকাশ বিজ্ঞানী আফিয়ার (আনুশকা শর্মা)। যিনি উঠে দাঁড়াতে পারবেন না। হুইল চেয়ারে বসেই যার জীবন কাটে। বাউয়া ও বিজ্ঞানী আফিয়ার মন জিতে নেয়। তারপর তাকে বিয়ের প্রস্তাবও দেয়, তবে শেষপর্যন্ত বিয়ের মণ্ডপে আফিয়াকে ছেড়ে যায় বাউয়া সিং।

জিরোর প্রথম হাফে একদিকে আফিয়া ও অন্যদিকে ববিতা কুমারীকে নিয়ে তার দ্বিধা-বিভক্ত বাউয়া সিংয়ের মানসিক দ্বন্দ্ব, দোলাচলতাকেই তুলে ধরা হয়েছে। ছবির দ্বিতীয় হাফটা কিছুটা ঘোটালা। দ্বিতীয় হাফে মঙ্গলগ্রহণ অভিযানকে নিয়ে আফিয়া ও বৌয়ার লড়াই। সিনেমাটি শেষ পর্যায়ে গিয়েও এটির শেষ হয়ে এই বিশ্বের বাইরে।

বিশ্লেষণ: পরিচালক আনন্দ এল রাইয়ের এই ছবির বিষয়বস্তু, পরিণতি সবটাই যেন বড় অদ্ভুত। ছবিতে শাহরুখ তার সেরাটা দেওয়ার চেষ্টা করেছেন ঠিকই, তবে ছবিতে তাকে যেভাবে আমরা পেয়েছি তা আমরা হয়ত আশা করিনি। ছবিতে কোনো অভিনেতাই যে চরিত্রগুলির সঙ্গে ঠিকঠাক ফিট করেনি। ছবির গানগুলি মন্দ নয়। তবে সব মিলিয়ে ছবিটি ঠিক যেন মনছুঁতে পারলো না। সব মিলিয়ে এই ছবিকে ৫ এর মধ্যে ৩টি স্টার দেওয়া যেতে পারে। সূত্র: জি-নিউজ