যুবদল নেতাকে তুলে নিয়ে দুই পায়ে গুলি

বুধবার, ডিসেম্বর ১৯, ২০১৮

ঢাকা: রাজশাহীর মোহনপুর উপজেলা যুবদলের সভাপতি বাচ্চুকে সাদা পোশাকে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর পরিচয়ে মাইক্রোবাসে উঠিয়ে গুলি করা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

বুধবার (১৯ ডিসেম্বর) বিকেল সাড়ে ৪ টার দিকে উপজেলার কেশরহাট বাজার হতে মোটরসাইকেলযোগে মোহনপুর সদরে আসার সময় দেশ কোল্ড স্টোরেজের সামনে থেকে সাদা পোশাকে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর পরিচয়ে বাচ্চুকে মাইক্রোবাসে উঠিয়ে নিয়ে যায়।

বাচ্চু রহমান (৪৫) উপজেলার সইপাড়া দক্ষিণ পাড়া গ্রামের মৃত লোকমান মেম্বারের ছেলে। এ বিষয়ে ঘটনাটি তার বড়ভাই জেলা পুলিশ সুপার শহিদুল্লাহ পিপিএমকে অবহিত করেন। পরে বিকেল অনুমান ৫টার কিছুক্ষন পরে তার দু’পায়ে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় বাগমারা উপজেলার অচিনঘাট এলাকায় পুকুরের পানি হতে অচেতন অবস্থায় পাওয়া যায়। পরে স্থানীয় লোকজন তাকে উদ্ধার করে রামেক হাসপাতালে ভর্তি করে।

হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক জানান, দুই পায়েই গুলি এপার থেকে ওপার দিয় বের হয়ে গেছে। তাই মাঝের হাড়টি ভেঙ্গে গেছে। এ ব্যাপারে মোহনপুর থানার অফিসার ইনচার্জ ওসি আবুল হোসেন জানান, মোহনপুর উপজেলা যুবদলের সভাপতি বাচ্চুকে গুলি করা হয়েছে। এখন সে রাজশাহী মেডেকেলে ভর্তি আছে। তবে কে বা কারা করেছে এটা এখনও জানা যায়নি। এবিষয়ে এখনও কেও কোন অভিযোগ করেনি।

এদিকে, বুধবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে ধুরইল ইউনিয়ন ৫নং ওয়ার্ড বিএনপিরি কার্যালয় ভাংচুর করেছে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা। এসময় ধুরইল মাস্টার পাড়া গ্রামের লায়েব আলী (৭৫) ও রিফুজি পাড়ার মৃত কুদ্দুস আলীর ছেলে জনাব আলী (৩৩) বেধড়ক পিটিয়ে গুরুতর আহতে করেছ তারা।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, ঘটনার আগে থেকেই ৫০-৬০ জনের একটি দল হাতে লাঠি নিয়ে শো-ডাউন দিচ্ছিল। তার কিছুক্ষন পরেই ধুরইল ইউনিয়ন ৫নং ওয়ার্ড বিএনপিরি কার্যালয় ভাংচুর করে। কার্যালয়ের ভিতরে টিভি, চেয়ারসহ বিভিন্ন আসবাবপত্র তারা ভেঙ্গে তছনছ করে দেয়। এসময় লায়েব আলী (৭৫) ও জনাব আলী (৩৩) নামের দুজনকে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা।