ঢাকা-১৭ আসন থেকে সরে দাঁড়াবেন এরশাদ

বুধবার, ডিসেম্বর ১৯, ২০১৮

ঢাকা : একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ঢাকা-১৭ আসন থেকে লাঙ্গল প্রতীক নিয়ে নির্বাচন মাঠ থেকে সরে দাঁড়াতে পারে পারেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসাইন মুহাম্মদ এরশাদ।

ওই আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী চিত্রনায়ক ফারুক নৌকা প্রতীকে নির্বাচন করছেন। তাকে সমর্থন দিয়ে সড়ে যাবার কথা শোনা যাচ্ছে।

এদিকে পার্টির সিনিয়র কো চেয়ারম্যান রওশন এরশাদের তরফ থেকে ময়মনসিংহ-৭ আসন ছেড়ে দেন৷ এদিকে চলতি সপ্তাহে এরাশাদ এমন সিদ্ধান্ত নিতে পারেব বলে দলীয় কার্যালয়ে গুঞ্জন ছিলো। মূলত বয়সের কারণে একাধিক আসনে লড়াই করবেন না বলে সবার ধারণা।

এ প্রসঙ্গে স্পষ্ট না করলেও জাপার নির্বাচনী সেলের প্রধান ও প্রেসিডিয়াম সদস্য অধ্যাপক দেলোয়ার হোসেন খান বলেছেন, হয়তো তিনি এই আসন থেকে নির্বাচন করবেন না।

এরশাদ আগামী ২২ ডিসেম্বর সিঙ্গাপুর থেকে দেশে ফিরবেন। তারপর আনুষ্ঠানিক ঘোষণা আসতে পারে বলেও জানান তিনি।

নিশ্চিত করার বিষয়ে তিনি পার্টির সাবেক মহাসচিব ও বর্তমানে পার্টির চেয়ারম্যানের সাংগঠনিক দায়িত্বে থাকা এ বি এম রুহুল আমিন হাওলাদারের সাথে যোগাযোগ করার পরামর্শ দেন। তবে হাওলাদারকে ফোনে পাওয়া যায়নি৷

চিকিৎসাজনিত কারণে বর্তমানে সিঙ্গাপুরে চিকিৎসাধীন রয়েছেন এরশাদ। হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ ২২ ডিসেম্বর নাগাদ দেশে ফিরতে পারেন বলে জাতীয় পার্টি সূত্র জানিয়েছে। এরশাদের বিশেষ সহকারী ও পার্টির সাংগঠনিক দায়িত্বপ্রাপ্ত এবিএম রুহুল আমিন হাওলাদার বলেছেন, দু’একদিনের মধ্যে জানা যাবে তিনি কবে ফিরবেন।

তিনি বলেছেন, স্যারের (এরশাদ) শারীরিক অবস্থা কিছুটা উন্নতির দিকে। তার নানা ধরণের স্বাস্থ্যগত পরীক্ষা-নিরীক্ষা চলছে। এগুলোর রিপোর্ট পেতে আরও কিছু সময়ের প্রয়োজন। এরপর বলা যাবে তিনি ঠিক কবে দেশে ফিরবেন।

তবে এরশাদের ঘনিষ্ঠ একটি সূত্র জানিয়েছে, এরশাদের প্রধান ডাক্তার বর্তমানে একটি বিশেষ সফরে আমেরিকা অবস্থান করছেন। আগামী ১৯ ডিসেম্বর সিঙ্গাপুরে ফিরবেন ডাক্তার। আপাতত অন্যান্য ডাক্তাররা তার শারীরিক পরীক্ষা-নিরীক্ষা করছেন। প্রধান ডাক্তার সিঙ্গাপুরে ফিরে এলে তার মতামতের ওপর নির্ভর করছে এরশাদের দেশে ফেরা না ফেরার বিষয়টি।

রংপুর জাতীয় পার্টির সূত্র জানিয়েছে, সেখানে ২৩ থেকে ২৫ ডিসেম্বরের মধ্যে উত্তরবঙ্গ সফরে যেতে পারেন। সেভাবে নেতাকর্মীদের প্রস্তুতি নিয়ে রাখতে বলা হয়েছে। দেশে ফেরার সিদ্ধান্ত এরশাদ তার একজন প্রতিনিধির মাধ্যমে সিঙ্গাপুরে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত ডা. মোস্তাফিজুর রহমানকে জানিয়েছেন।