‘জানুয়ারি পর্যন্ত সমস্ত এয়ারলাইন্সের টিকিট বুকিং দিয়েছেন লুটপাটকারীরা’

রবিবার, ডিসেম্বর ১৬, ২০১৮

ঢাকা : বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আহমেদ বলেছেন, ‘গত দশ বছরে আওয়ামী লীগের লোকেরা যতো লুটপাট করেছে তার সমস্ত অর্থ বিদেশে পাচার করে দিয়েছেন। আওয়ামী লীগের ওয়ার্ড পর্যায়ের নেতারাও এখন কোটি কোটি টাকার মালিক। জনগণের কাছে লুটপাটের পাই টু পাই হিসেব রয়েছে।’

রোববার বিকেলে রাজধানীর নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি একথা বলেন।

রিজভী বলেন, ‘লুটপাটকারী আওয়ামী লীগের কিছু নেতা ইতোমধ্যে দেশ ছেড়েছেন, তারা আর দেশে ফিরছে না। অনেক নেতাকর্মী ভিসা-টিকিট লাগিয়ে রেখেছে। জানুয়ারি পর্যন্ত সমস্ত এয়ারলাইন্সের টিকিট বুক হয়ে গেছে।

খোঁজ নিয়ে দেখুন-এরা কারা, এরা দেশ ছাড়ার প্রস্তুতি নিচ্ছে কিনা খোঁজ নিন। জনগণের টাকা আত্মসাৎকারীরা এখন দিশেহারা হয়ে পড়েছে নির্বাচনের পরে কী হয়, এই আতঙ্কে।’

বিএনপির এই নেতা বলেন, নির্বাচন বানচাল করতেই পরিকল্পিতভাবে বিএনপি নেতাকর্মী ও প্রার্থীদের ওপর ধারাবাহিক হামলা চালাচ্ছে আওয়ামী সন্ত্রাসী ও আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা।

দেশকে সহিংসতার দিকে ঠেলে দিয়ে নির্বাচনী মাঠে ঘোলা পানিতে মাছ শিকার করতে চাচ্ছে। তারা জেনে গেছে সামান্যতম সুষ্ঠু ভোট হলেও তাদের ভরাডুবি হবে, ধানের শীষের বিপুল বিজয় হবে। তাই দেশজুড়ে এতো সহিংসতা ও রক্তাক্ত পরিবেশ তৈরি করেছে আওয়ামী শাসকগোষ্ঠী। নির্বাচনের শুরুতে তারা বিএনপিকে নির্বাচন থেকে সরাতে চেষ্টা করেছে।’

তিনি বলেন, ‘আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের সাহেব স্বীকার করেছিলেন মহাজোটের শরিকরা এককভাবে প্রার্থী দিয়েছেন কৌশল হিসেবে। যাতে বিএনপিকে নির্বাচনী মাঠ থেকে সরিয়ে একতরফা নিবাচন করা যায়। আবার নির্বাচন অংশগ্রহণমূলকও হয়।

কিন্তু বিএনপি ও জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট নির্বাচনের মাঠে অনড় অবস্থায় থাকায় এখন আওয়ামী লীগ বেসামাল হয়ে পাবনার হেমায়েতপুরের হাসপাতালের অসুস্থ বাসিন্দাদের মতো কথা বলছে।’