ধানের শীষের প্রার্থী আবু সাইয়িদের গাড়িবহরে হামলা-ভাঙচুর

বৃহস্পতিবার, ডিসেম্বর ১৩, ২০১৮

ঢাকা : সদ্য গণফোরামে যোগ দেয়া পাবনা-১ আসনের ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থী ড. আবু সাইয়িদের গাড়িবহরে হামলা চালানো হয়েছে। পাবনার সাঁথিয়া বাজারে শিমুলতলা মোড়ে বৃহস্পতিবার বেলা ১১টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

এ সময় আবু সাইয়িদের বহরে থাকা দুটি গাড়ি ভাঙচুর করা হয়েছে। দুটি মোটরসাইকেল নিয়ে যাওয়া হয়েছে। প্রচার মাইকও কেড়ে নেয়া হয়েছে। এসব অভিযোগ আবু সাইয়িদের।

হামলার শিকার হয়ে আবু সাইয়িদ সাথিয়া থানায় যান। সেখানে লিখিত অভিযোগ না করে পুলিশকে বলেন, আমি আক্রান্ত হয়েছি। পরে এ বিষয়ে লিখিত অভিযোগ করব। বিষয়টি রিটার্নিং কর্মকর্তাকে জানিয়ে ব্যবস্থা নেয়ার অনুরোধ করেন জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের এ প্রার্থী।

আবু সাইয়িদের কর্মী-সমর্থকদের অভিযোগ, পাবনা-১ আসনে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী আওয়ামী লীগ নেতা সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শামসুল হক টুকুর কর্মী-সমর্থকরা অতর্কিত এ হামলা চালিয়েছে।

তারা জানান, পূর্বনির্ধারিত নির্বাচনী গণসংযোগে যোগ দিতে সাথিয়ার ধোপদাহ ইউনিয়নে যাচ্ছিলেন আবু সাইয়িদ। পথে সাথিয়া বাজারের কাছাকাছি শিমুলতলী মোড়ে গাড়িবহরে লাঠিসোটা নিয়ে হামলা চালায় প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর লোকজন।

এ সময় হামলাকারীরা বহরে থাকা দুটি গাড়ি ভাঙচুর করে। দুটি মোটরসাইকেল নিয়ে যায়। গাড়িতে থাকা প্রচার মাইক কেড়ে নেয়।

সঙ্গে থাকা নেতাকর্মীরা আবু সাইয়িদকে ঘিরে রাখেন। তারা তাকে নিয়ে ঘটনাস্থল ত্যাগ করে দ্রুত থানায় নিয়ে যায়। এ সময় কারও হতাহত হওয়ার খবর পাওয়া যায়নি।

আবু সাইয়িদ থানার দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ও রিটার্নিং কর্মকর্তাকে বিষয়টি জানিয়ে পূর্বনির্ধারিত গণসংযোগে যোগ দেন।

প্রসঙ্গত, আওয়ামী লীগ নেতা আবু সাইয়িদ পাবনা-১ আসনের সাবেক এমপি। পরে এ আসন থেকে দলীয় মনোনয়ন নিয়ে এমপি হন শামসুল হক টুকু। তাকে স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীও করা হয়।

এবারও আবু সাইয়িদ আওয়ামী লীগের মনোনয়নপ্রত্যাশী ছিলেন। মনোনয়ন না পেয়ে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শরিক গণফোরামে যোগ দেন। ঐক্যফ্রন্ট তাকে এ আসনে মনোনয়ন দেয়।