গ্যাসে ভর্তুকি দিতে হবে ৩১০০ কোটি টাকা : বিইআরসি

মঙ্গলবার, অক্টোবর ১৬, ২০১৮

ঢাকা: আপাতত বাড়ছে না গ্যাসের দাম। তবে দাম না বাড়িয়ে তরলীকৃত প্রাকৃতিক গ্যাস (এলএনজি) আমদানিতে ৩ হাজার ১০০ কোটি টাকা ভর্তুকি দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বাংলাদেশে এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন (বিইআরসি)। মঙ্গলবার (১৬ অক্টোবর) বিকেলে এক সংবাদ সম্মেলনে এ কথা জানায় তারা।

সংবাদ সম্মেলনে বিইআরসি সদস্য আব্দুল আজিজ খান বলেন, ‘এলএনজি আমদানিতে ৩ হাজার ১০০ কোটি টাকা ভর্তুকি প্রয়োজন হবে। যা সরকারি তহবিল থেকে সরবরাহ করা হবে।’

বিইআরসি চেয়ারম্যান মনোয়ার ইসলাম বলেন, ‘‘গ্যাসের উৎপাদন, এলএনজি আমদানি, সঞ্চালন ও বিতরণ ব্যয় বেড়ে যাওয়ার পরও সার্বিক দিক বিবেচনা করে ‘বিইআরসি রেগুলেটরি আইন ২০০৩ এর ধারা ২২ (খ) এবং ৩৪’-এ দেওয়া ক্ষমতা বলে কমিশন ভোক্তাপর্যায়ে বিদ্যমান মূল্যহার পরিবর্তন না করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।’’

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, কমিশন নিরাপত্তা জামানত, বিল পরিশোধ, বিল পৌঁছানো বিষয়ে আগের নিয়মের পরিবর্তন করেছে। বিতরণ সিস্টেম লস নিরূপণের প্রচলতি পদ্ধতিতে পরিবর্তন আনা হয়েছে। এছাড়া গ্যাস সঞ্চালন এবং বিতরণ ব্যবস্থায় আরও কিছু সংস্কার বাস্তবায়নের আদেশ দেওয়া হয়েছে। এই আদেশ ১৮ সেপ্টম্বর থেকে কার্যকর হবে।

এর আগে গত ৭ অক্টোবর বিইআরসি চেয়ারম্যান গ্যাসের দাম বাড়াতে সরকারের নির্দেশনা চান। ওই দিনই তিনি প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ে যান। আগে থেকেই জানানো হয়েছিল প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে ফিরে এসে তিনি গ্যাসের দাম বাড়ানোর ঘোষণা দেবেন। তবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নির্বাচনের আগে কোনও ধরনের গ্যাসের দাম বৃদ্ধি না করার বিষয়ে নির্দেশনা দেন। ফলে ওই দিনের সংবাদ সম্মেলন বাতিল করে বিইআরসি।

প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ অনুযায়ী দাম না বাড়ালে গ্যাসে কত টাকা ভর্তুকি দিতে হবে তা নিরুপণ করতে বিইআরসিকে নির্দেশ দেয় সরকার। এরই প্রেক্ষিতে কমিশন গত সপ্তাহজুড়ে ভর্তুকির পরিমাণ নির্ধারণ করে। এবার কমিশন জানালো তাদের ৩১০০ কোটি টাকা ভর্তুকি প্রয়োজন।