‘নির্বাচনে দেশি-বিদেশি অনেক ষড়যন্ত্র আছে’

সোমবার, অক্টোবর ১৫, ২০১৮

ঢাকা: বিএনপিকে হাঁটু ভাঙা দল মন্তব্য করে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কা‌দের বলেছেন, ‘হাঁটু ভাঙা দল বিএনপি ভর করেছে কোমর ভাঙা দলের নেতার কাঁধে। জাতীয় ঐক্যফ্রন্টকে দেশের মানুষ বিশ্বাস করে না। তারা ডাক দিলে জনগণ সাড়া দিবে না।’

সোমবার (১৫ অক্টোবর) ঢাকার যাত্রাবাড়ী চৌরাস্তা মোড়ে নির্বাচনী প্রচারপত্র বিতরণ অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘স্লোগান পাল্টা স্লোগান দিয়ে নমিনেশন পাওয়া যাবে না, রং বে রঙের পোস্টার দেখে নমিনেশন দেয়া হবে না। যারা জনগণের সঙ্গে ভালো আচরণ করে না, চাঁদাবাজি করে, অপকর্ম করে তাদের মনোনয়ন দেয়া হবে না। ভালো হয়ে যান, কেউ অপকর্ম করবেন না, কেউ চাঁদাবাজি করবেন না। আওয়ামী লীগের দখলদার চাঁদাবাজদের জায়গা নেই।’

আগামী নির্বাচন খুব চেলেঞ্জিং হবে জানিয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘এই নির্বাচনে দেশি-বিদেশি অনেক ষড়যন্ত্র আছে। আওয়ামী লীগে ঐক্য থাকলে ৭০ দল ঐক্য করলেও আওয়ামী লীগের বিজয় কেউ ঠেকাতে পারবে না। নির্বাচনে পরাজিত করতে পারবে না।’

নির্বাচনে মনোনয়ন প্রত্যাশীদের প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘আপনাদের কাছে আমার দাবি একটাই, প্রার্থী ৪/৫ যে ই হোক, নমিনেশন পাবে একজন। বাকি ৪ জন যদি ভেতরে ভেতরে বিরোধিতা করেন তাহলে আমাদের জন্য ভালো হবে না। প্রার্থী হওয়ার অধিকার সবারই আছে। অসুস্থ প্রতিযোগিতা কর্মীদের মধ্যে শত্রুতার সৃষ্টি করে। এই শত্রুতা সৃষ্টি করবেন না।’

বিএনপির আন্দোলন প্রসঙ্গে কাদের বলেন, ‘১০ বছরে বিএনপির আন্দোলন দেশের মানুষ দেখেনি। তাদের আন্দোল আর কবে হবে। দেশের মানুষ আন্দোলন নয়, নির্বাচন মুডে আছে। বিএনপি মরা গাঙ্গে জোয়ার আসবে না। সামনে নির্বাচন, বিএনপি সাত দফা দাবি দিয়েছে। তাদের সাত দফা দাবি মামা বাড়ির আবদার। সাত দফা দফা দাবি হলো নির্বাচন বানচালের ষড়যন্ত্রের দাবি।’

এসময় উপস্থিত ছিলেন দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ, যাত্রাবাড়ী থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি মনিরুল ইসলাম মনু প্রমুখ।