ইন্টারপোল প্রধান নিখোঁজ নন, চীনে আটক!

রবিবার, অক্টোবর ৭, ২০১৮

গোয়েন্দা সংস্থা ইন্টারপোল-এর প্রেসিডেন্ট মেং হংওয়েই’কে আটক করেছে চীনা কর্তৃপক্ষ। এর আগে, রহস্যজনকভাবে তিনি নিখোঁজ হয়েছেন বলে পশ্চিমা গণমাধ্যমগুলোতে খবর প্রকাশিত হয়।

পশ্চিমা গণমাধ্যমগুলোতে বলা হয়েছিল,  মেং হংওয়েই’কে কোথাও খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। এ বিষয়ে ফরাসি পুলিশ তদন্তে নেমেছে। এমন খবরে যখন ধোঁয়াশা সৃষ্টি হয়েছে তখন তাকে চীনে আটকের খবর মিলল।

একটি সূত্রের বরাত দিয়ে হংকং ভিত্তিক সাউথ চায়না মর্নিং পোস্ট জানিয়েছে, ইন্টারপোল প্রেসিডেন্টের বিরুদ্ধে তদন্তের জন্য জিজ্ঞাসাবাদ করতে এ ব্যবস্থা নিয়েছে চীনা কর্তৃপক্ষ। তবে ইন্টারপোল প্রধানের বিরুদ্ধে কি ধরনের অভিযোগ রয়েছে তা এখনো যায়নি।

এর আগে আন্তর্জাতিক পুলিশ সংস্থা ইন্টারপোলের প্রেসিডেন্ট মেং হোংউইর খোঁজে তদন্ত শুরু করেছে ফ্রান্স। গত ২৫ সেপ্টেম্বর থেকেই চীনা এ নাগরিকের সন্ধান নেই বলে জানিয়েছেন তার স্ত্রী। ফরাসী শহর লিঁওর ইন্টারপোল সদরদপ্তরে থেকে বের হয়ে চীনে রওনা হওয়ার পর থেকেই তিনি ‘নিখোঁজ’, জানিয়েছে বিবিসি। মেং ‘ফ্রান্সে নেই’, চীনে নামার পরপরই তাকে আটক করা হয়েছে বলে ধারণা ফরাসী কর্মকর্তাদের।

৬৪ বছর বয়সী ইন্টারপোল প্রধানকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ‘তুলে নেওয়া হয়েছে’ এক সূত্রের বরাত দিয়ে এমনটাই জানিয়েছে সাউথ চায়না মর্নিং পোস্ট। কি কারণে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে, কিংবা কোথায় তাকে আটক রাখা হয়েছে তা নিশ্চিত হতে পারেনি হংকংভিত্তিক এ সংবাদমাধ্যমটি।

শি জিনপিং চীনা কমিউনিস্ট পার্টির (সিপিসি) প্রধান হওয়ার পর থেকে দুর্নীতি ও অবৈধ কর্মকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত দেশটির অসংখ্য কর্মকর্তাকে আটক ও সাজা দিয়েছে চীন সরকার।

চূড়ান্ত অভিযোগ উত্থাপনের আগ পর্যন্ত চীনা কর্মকর্তারা জিজ্ঞাসাবাদ বিষয়ে কঠোর গোপনীয়তা বজায় রাখেন।

সিপিসির জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা মেং তাদের হেফাজতে আছে কিনা, কিংবা কি নিয়ে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে সে বিষয়ে মুখ খোলেননি চীনের কর্মকর্তারা। মেং-এর স্ত্রী ফরাসী পুলিশের কাছে ইন্টারপোল প্রধানের ‘নিখোঁজের’ বিষয়টি জানানোর পর ফ্রান্স তদন্ত কার্যক্রম শুরু করে।

২৯ সেপ্টেম্বর থেকে মেং-এর খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না, স্ত্রীর বরাত দিয়ে ফ্রেঞ্চ পুলিশ প্রথমে এ তথ্য দিলেও পরে ফরাসী স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সংশোধন করে ২৫ তারিখ থেকেই ইন্টারপোল প্রধানের সন্ধান নেই বলে জানায়।

চীনা কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আলোচনা অব্যাহত আছে। ইন্টারপোল প্রেসিডেন্টের পরিস্থিতি নিয়ে ্রফ্রান্স বিভ্রান্ত এবং তার স্ত্রী যে হুমকির কথা জানিয়েছেন তা নিয়েও উদ্বিগ্ন, বলেছে ফরাসী স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। এক বিবৃতিতে ইন্টারপোলও জানায়, মেং-এর ‘নিখোঁজের অভিযোগ’ নিয়ে তারা সজাগ।

প্রেসিডেন্ট হিসেবে মেং সংস্থাটির নির্বাহী কমিটির নেতৃত্ব দিতেন, যারা ইন্টারপোলের কর্মকাণ্ডের সার্বিক দিক নির্দেশনা ও নানান বিষয়ে পরামর্শ দিত।
তবে ১৯২টি সদস্য সংস্থা নিয়ে গঠিত এ আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠানের দৈনন্দিন কার্যক্রম দেখভালের দায়িত্ব সেক্রেটারির হাতেই থাকে, প্রেসিডেন্টের সেখানে ভ‚মিকা নেই বলেও জানিয়েছে ইন্টারপোল।

২০১৬ সালের নভেম্বরে ইন্টারপোলের দায়িত্ব নেওয়ার আগে মেং চীনের জননিরাপত্তা বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সহকারী মন্ত্রীর দায়িত্বে ছিলেন। আন্তর্জাতিক এ পুলিশ সংস্থার প্রেসিডেন্ট হিসেবে তার মেয়াদ ২০২০ সাল পর্যন্ত।